ভোরে স্কুলের নৈশপ্রহরীকে কুপিয়ে জখম, পাওনা টাকা চাওয়ার জের

চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে স্কুলের নৈশপ্রহরীকে কুপিয়ে জখম করেছে তারই এক পূর্ব পরিচিত লোক। বৃহস্পতিবার (২২ জুলাই) ভোর ৫টায় উপজেলার খৈয়াছরা ইউনিয়নে অবস্থিত আবুল কাশেম বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে এই ঘটনা ঘটে। পরে আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ চমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহত নৈশপ্রহরীর নাম নাজিম উদ্দিন (৪২)। তিনি খৈয়াছরা ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের দুয়ারু এলাকার শাহজাহান মেম্বার বাড়ির আবুল হোসেনের ছেলে।

এ ঘটনায় নাজিম উদ্দিনের হাতের দুটি রগ ও কপালসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম হয়েছে।

বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক মোস্তাফিজুর রহমান স্বপন চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, গত বৃহস্পতিবার গাইবান্ধা থেকে একটা ছাগল আনার জন্য সবুজ নামের একজনকে ৫ হাজার টাকা বিকাশ করেন নৈশপ্রহরী নাজিম। কিন্তু সবুজ ছাগল এনে দেয়নি। এরপর নাজিম তার টাকা ফেরত চাইলে এটা নিয়ে তাদের মধ্যে কথাকাটাকাটি হয়। তারই জেরে আজ সকালে নাজিম যখন ফজরের নামাজ আদায় করে স্কুলে তার রুমে ঘুমাচ্ছিলেন তখন সবুজ গিয়ে তাকে কুপিয়ে আহত করে। এ সময় নাজিম দৌড়ে গিয়ে পার্শ্ববর্তী মিরসরাই ফিলিং স্টেশনে গিয়ে আশ্রয় নেন।

তিনি আরও বলেন, সবুজের বাড়ি গাইবান্ধায় হলেও তিনি মিরসরাইয়ে শ্রমিক হিসেবে কাজ করেন। সবুজ এবং নাজিমের মধ্যে সুসম্পর্ক রয়েছে। সবুজ নাজিমকে মালিক বলেও সম্বোধন করতেন।

মিরসরাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এসএম সরোয়ার উদ্দিন বলেন, আহত নৈশপ্রহরীকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

মিরসরাই থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মজিবুর রহমান চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, এই বিষয়ে একটা অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি আমরা আমরা তদন্ত করছি। ঘটনার পর থেকে সবুজ পলাতক রয়েছে। তবে তাকে আটকের চেষ্টা চলছে।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!