বয়স লুকাতে কোর্টে গিয়ে বিয়ে, বর কারাগারে

0

খাগড়াছড়ির মানিকছড়িতে বাল্যবিবাহের জেরে মো. আকতার হোসেন নামের এক বরকে ৭ দিনের জেল দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। বৃহস্পতিবার (১৫ আগস্ট) তাকে এ সাজা দেন মানিকছড়ি উপজেলা নির্বাহী অফিসার তামান্না মাহমুদ। এ সময় কনের পিতা আবুল কাশেমকে এক হাজার টাকা ও বরের পিতা তাজুল ইসলামকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। বাল্যবিবাহের শিকার সালমা আকতার উপজেলার বাঞ্চারাম পাড়ার আবুল কাশেমের মেয়ে এবং ডাইনছড়ি দাখিল মাদ্রাসার নবম শ্রেণীর ছাত্রী।

জানা যায়, বর ও কনের বয়স কম হওয়ায় স্থানীয় কাজী বিবাহ রেজিস্ট্রি না করলে বর পক্ষ ও কনে পক্ষ খাগড়াছড়ি জেলার জজ কোর্টে গিয়ে গত ১৫ জুন এডভোকেট মহিউদ্দিন কবিরের মাধ্যমে হলফনামা করে বিবাহের কাজ সম্পন্ন করে।

বৃহস্পতিবার আনুষ্ঠানিক বিবাহের কাজ শুরু হলে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মানিকছড়ি উপজেলা মহিলাবিষয়ক কর্মকর্তা মো. কামরুল আলম অভিযান চালিয়ে বর ও কনেকে ধরে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে নিয়ে যায়।

দু’জনের বক্তব্য শুনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তামান্না মাহমুদ ভ্রাম্যমাণ আদালতে বর আকতার হোসেনকে ৭ দিনের সাজা ও বরের পিতা তাজুল ইসলামকে ৫ হাজার টাকা এবং কনের পিতা আবুল কাশেমকে এক হাজার টাকা জরিমানা করে বরকে জেলে পাঠানো হয়।

এএইচ

Loading...
আরও পড়ুন