s alam cement
আক্রান্ত
৫১০৯৩
সুস্থ
৩৭১৬৮
মৃত্যু
৫৬৩

ব্যারিস্টার মীর হেলালের বিরুদ্ধে মামলা করায় নিন্দা

0

বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটি ও ফরেন অ্যাফেয়ার্স কমিটির সদস্য, সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী এবং জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের আজীবন সদস্য ব্যারিস্টার মীর হেলালের বিরুদ্ধে চট্টগ্রামের হাটহাজারি থানায় মামলা দায়েরের ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশন (জেডআরএফ)।

সোমবার (২৬ এপ্রিল) এক বিবৃতিতে জেডআরএফের নির্বাহী পরিচালক অধ্যাপক ডা. ফরহাদ হালিম ডোনার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।

তিনি বলেন, বর্তমান সরকার মহামারী করোনা পরিস্থিতির মধ্যেও বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের উপর নিপীড়ন নির্যাতন চালাচ্ছে। সরকার তাদের ব্যর্থতার সমালোচনা পর্যন্ত সহ্য করছে না। তারা গণতন্ত্রের ন্যূনতম স্পেসও বিরোধী দলকে দিচ্ছে না। এমনিতেই বিএনপির কোনো দৃশ্যমান রাজনৈতিক কর্মসূচি নেই। তবুও বিএনপি ও বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের হয়রানি করা হচ্ছে নানাভাবে। যার প্রমাণ গত বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) চট্টগ্রামের হাটহাজারি থানায় বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির অন্যতম সদস্য ও জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের আজীবন সদস্য ব্যারিস্টার মীর হেলালসহ বিএনপির স্থানীয় অর্ধশতাধিক নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করা। এটি সরকারের একটি অপকৌশল মাত্র। যা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট মামলা।

বিবৃতিতে আরও উল্লেখ করা হয়, হাটহাজারি থানায় দায়ের হওয়া মামলাটি সম্পূর্ণ মিথ্যা ও পরিকল্পিত রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। এ ধরনের ঠুনকো অভিযোগে বিএনপির নেতাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা খুবই ন্যাক্কারজনক ঘটনা। আসলে এটি সম্পূর্ণ রাজনৈতিক প্রতিহিংসাবশত এবং রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে। কেননা মহামারী করোনাভাইরাসে গোটা বিশ্ব যখন সঙ্কটে তখন বাংলাদেশে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকারের লাগামহীন লুটপাট ও দুর্নীতির ব্যর্থতা ঢাকতেই এই মামলা করা হয়েছে বলে দেশের মানুষ মনে করে।

বিবৃতিতে ডা. ডোনার বলেন, আমি এ ধরনের মিথ্যা মামলা দায়েরের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। পাশাপাশি অবিলম্বে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী এবং জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের আজীবন সদস্য ব্যারিস্টার মীর হেলালসহ বিএনপি স্থানীয় নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।

এসএ

ManaratResponsive

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm