বোয়ালখালীতে জামায়াতের ছাত্রী সংগঠন ইসলামী ছাত্রী সংস্থার ৩ কর্মীসহ ৫ নারী আটক

0

প্রতিদিন রিপোর্ট :

চট্টগ্রামের বোয়ালখালী থেকে জামায়াতের ছাত্রী সংগঠন ইসলামী ছাত্রী সংস্থার ৩ কর্মীসহ ৫ নারীকে আটক করেছে পুলিশ। এদের কাছ থেকে ব্যানার ও ৩ বস্তা ইসলামী বই উদ্ধার করেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।
আজ বুধবার বেলা ২টার দিকে উপজেলার পূর্ব গোমদণ্ডি এলাকার সামাদ আলীর বাড়িতে বোয়ালখালী থানা পুলিশ এ আভিযান চালায়।
ctg-boalkali-gomdandi-pic-02
তবে পুলিশ আটককৃদের নাম পরিচয় জানাতে পারেন নি। আটককৃতদের মধ্যে ৩ জন ইসলামী ছাত্রী সংস্থার কর্মী। এদের মধ্যে ২ জন চট্টগ্রাম সরকারী কলেজের (ইংলিশ) অনার্স ছাত্রী। অন্য জন শাকপুরা মাদ্রাসার ছাত্রী।

অন্য দুই নারী জামায়াতের মহিলা কর্মী বলে পুলিশ জানায়। এদের মধ্যে যে বাড়িতে বৈঠক চলছিল সে বাড়ির গৃহকর্তী শাহনাজ বেগমও রয়েছে।

বোয়ালখালী থানার সেকেণ্ড অফিসার মোস্তাক আহমেদ সাংবাদিকদের এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, জামায়াতে ইসলামীর ও ইসলামী ছাত্রী সংস্থার কর্মীরা গোপন বৈঠক করছে খবর পেয়ে দুপুরে আমরা অভিযান চালায়। অভিযানে বিপুল পরিমাণ বিভিন্ন ধর্মী উস্কানিমূলক জিহাদী বই, সংগঠনের ব্যানার উদ্ধার এবং ৫ জন নারীকে আটক করা হয়েছে।
এদিকে অভিযানের পর পরই চট্টগ্রামের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (দক্ষিণ) একেএম এমরান ভূঁইয়াসহ পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করছেন। একেএম এমরান ভূঁইয়া বলেন, সন্দেহজনক এই বাড়ি থেকে ছয় নারী আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এই মূর্হুতে বিস্তারিত কিছু বলা যাচ্ছে না। আটককৃতদের মোবাইল ও উদ্ধারকৃত বই, লিফলেট খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তারা বিভিন্ন উপজেলার হওয়ায় বোয়ালখালী থানার পুলিশের সমন্বয়ে টিম গঠন করা হয়েছে। আশা করি খুব দ্রুতই বিস্তারিত জান যাবে বলে উল্লেখ করেন এ কর্মকর্তা। তিনি বিষয়টি উদ্ঘাটনে বোয়ালখালী অবস্থান নিয়েছেন বলেও সাংবাদিকদের জানান।

আটকৃতদের মধ্যে রয়েছে স্থানীয় আবদুস সালামের স্ত্রী নুর বেগম, মেয়ে শাহনাজ, চট্টগ্রাম কলেজের ইংরেজী ১ম বর্ষের দুই ছাত্রী। তাদের একজনের বাড়ি লোহাগাড়া উপজেলায়। বোয়ালখালীর জ্যৈষ্ঠপুরা কানুনগোপাড়া সরকারি আশুতোষ কলেজের এক ছাত্রী। কালুরঘাট আমতল এলাকার এক মেয়ে রয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, সন্দেহজনক বাড়িটি প্রবাসী আবদুস সালামের। তিনি বর্তমানে বিদেশে অবস্থান করছেন। এ কাছারী ঘরে আবদুস সালামের মেয়ে শাহনাজ প্রায় বিভিন্ন মেয়েদের নিয়ে গোপন বৈঠক করতেন।
আদুস সালামের মেয়ে শাহনাজকে কক্সবাজার জেলা চকরিয়া উপজেলার প্রবাসী রেজাউল করিমের সাথে ৩বছর পূর্বে বিয়ে হয়।

এলাকার প্যানেল মেয়র মুজিবুর রহমান মুজিব বলেন, ফজলে করিমের মাধ্যমে শাহনাজের বিয়ে হয়। শাহনাজের ভাসুর বোয়ালখালীতে দীর্ঘদিন ধরে ভাড়াবাসায় অবস্থান করে আসছে। এছাড়া শাহনাজের ছোট ভাই মিনহাজ পড়ালেখার জন্য ঢাকায় অবস্থান করছেন। মিনহাজ ঢাকার ডুয়েট নামক একটি কোচিং সেন্টারের শিক্ষকতার পাশাপাশি টেক্সটাইল প্রকৌশল নিয়ে পড়াশুনা করছে। শাহনাজ শাকপুরা মাদ্রাসা থেকে আলিম পাশ করে।
শাহনাজের চাচী ছেনোয়ারা বেগম জানান, প্রায় মেয়েরা এই কাছারী ঘরে আসা যাওয়া করে। তবে কি বিষয় নিয়ে তাদের মধ্যে আলোচনা চলে তা কেউই জানে না।

 

পাঠক নি :

এ এস / জি এম এম / আর এস পি :::

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন