বৈধ উপায়ে বিদেশ যাত্রায় তৃতীয় স্থানে চট্টগ্রাম

প্রথম কুমিল্লা ও দ্বিতীয় ব্রাক্ষণবাড়িয়া

0

বৈধ উপায়ে বিদেশ যাত্রার জেলাভিত্তিক তালিকায় দেশের ৬৪ জেলার মধ্যে তৃতীয় স্থানে রয়েছে চট্টগ্রাম। বিদেশ যাত্রায় প্রথম স্থানে রয়েছে কুমিল্লা, দ্বিতীয় স্থানে ব্রাক্ষমবাড়িয়া ও চতুর্থ স্থানে রয়েছে টাঙ্গাইল জেলা।

এছাড়াও বিদেশ যাত্রায় অপেক্ষাকৃত কম অংশ নিয়েছে লালমনির হাট, রাঙ্গামাটি, বান্দরবান ও পঞ্চগড় জেলার বাসিন্দারা।

শনিবার (১ ফেব্রুয়ারি) চট্টগ্রাম নগরির সার্কিট হাউসে বৈদেশিক কর্মসংস্থানের জন্য দক্ষতা সচেতনতা শীর্ষক প্রচার, প্রেস ব্রিফিং ও সেমিনার এ সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানানো হয়।

চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুল মান্নানের সভাপত্বিতে এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ।

এছাড়াও সভার প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ড. আহমেদ মনীরুছ সালেহীন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং বলেন- জনশক্তি দেশের সম্পদ। তাই দক্ষতা ও প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দেশের জনশক্তিকে কাজে লাগাতে হবে। কোন দেশের কেমন চাহিদা সেটা বুঝে প্রশিক্ষণ দিতে হবে এবং সেই দেশে পাঠাতে হবে।

এছাড়াও বিভাগীয় পরিকল্পনায় প্রশিক্ষণ দেওয়ার উপর জোর আরোপ করে তিনি বলেন, কোন দেশে কোন ধরণের জনশক্তির কেমন চাহিদা আছে আগে তা নির্ণয় করে বিভাগীয় অঞ্চগুলোতে প্রশিক্ষণ প্রদান করতে হবে।

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ জানান- প্রতি বছর ২০ লাখের অধিক নতুন জনশক্তি দেশের শ্রমবাজারে যোগদান করছে। এছাড়াও বিশ্বের ১৭৩ টি দেশে ১ কোটি ২০ লাখের বেশি বাংলাদেশি বিভিন্ন কাজে নিয়োজিত আছে। প্রতি বছর গড়ে ৭ থেকে ৮ লাখ যুবশক্তির বিদেশে কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে হয়ে থাকে। এদের মধ্য ২০১৯ সালে চট্টগ্রাম থেকে বৈধ উপায়ে কর্মসংস্থানের জন্য বিদেশ যাত্রা করেন ৩৪ হাজার ৮৮৭ জন, যা দেশের তৃতীয় সর্বোচ্চ। এছাড়াও প্রথম স্থানে থাকা কুমিল্লা জেলা থেকে কর্মসংস্থানের জন্য বিদেশ যাত্রা করেন ৬৬ হাজার ৩৩৫ জন এবং দ্বিতীয় স্থানে থাকা ব্রাক্ষমবাড়িয়া থেকে কর্মসংস্থানের জন্য বিদেশ যাত্রা করেন ৪১ হাজার ৪৫৫ জন।

সম্প্রতি কম্বোডিয়া, চীন, সিসেলস, জাপান, রোমানীয়া, হাঙ্গেরি, পোল্যান্ড ও বসনিয়া সহ ইউরোপের বিভিন্ন দেশে নতুন শ্রমবাজার খোলা হয়েছে।

তবে জনশক্তি রপ্তানিতে দালাল সিন্ডিকেট সহ বিভিন্ন চ্যালেঞ্জের কথা তুলে ধরে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ জানান- ভুল ও অসত্য তথ্যর ভিত্তিতে বিদেশ যাত্রা, দক্ষতা অর্জনে অনীহা, সংশ্লিষ্ট দেশের নির্ধারিত প্রশিক্ষণ ও ভাষা না জেনে বিদেশ যাওয়ার প্রবণতা, সরকার নির্ধারিত অভিবাসন ব্যয় না জেনে দালালের মাধ্যমে উচ্চ অভিবাসন ব্যয়ে বিদেশ যাত্রা, দালাল চক্রের প্রতারণার শিকার, বৈধ মাধ্যমে রেমিট্যান্স প্রেরণ না করা, ভিসা ট্রেডিংয়ের মাধ্যমে বিদেশ যাত্রা, ফ্রি ভিসার মাধ্যমে বিদেশ যাত্রা ও বেতন, কাজ বা চুক্তিপত্র না জেনে বিদেশ যাত্রা বড় চ্যালেঞ্জ।

এএ/এসএইচ

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন