বে-টার্মিনালে বাড়বে চট্টগ্রাম বন্দরের সক্ষমতা

পলোগ্রাউন্ডে উইম্যান এসএমই এক্সপো উদ্বোধনকালে বাণিজ্যমন্ত্রী

0

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি এমপি বলেছেন, বে-টার্মিনাল নির্মাণের মাধ্যমে সরকার চট্টগ্রাম বন্দরের সক্ষমতা বৃদ্ধিতে কাজ করছে। এ ব্যাপারে সরকার আন্তরিক। চট্টগ্রাম বাণিজ্যিকভাবে খুবই গুরুত্বপূর্ণ, দেশের বাণিজ্যের প্রাণকেন্দ্র। তাই বে-টার্মিনালসহ আরো শক্তিশালী করা হচ্ছে চট্টগ্রাম বন্দরকে।

শুক্রবার (১ নভেম্বর) বিকাল ৪টায় চট্টগ্রামের রেলওয়ে পলোগ্রাউন্ড মাঠে ১৩তম আন্তর্জাতিক উইম্যান এসএমই এক্সপো-২০১৯ উদ্বোধনকালে তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

টিপু মুনশি বলেন, বাংলাদেশে সর্বক্ষেত্রে মহিলারা এগিয়ে যাচ্ছে। শিক্ষাক্ষেত্রে দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে মেয়েরা। সম্প্রতি মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষায় পুরুষের চেয়ে নারী শিক্ষার্থী ছিল ৪ হাজার বেশি।

দেশের প্রধানমন্ত্রী একজন মহিলা উল্লেখ করে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী সবসময় জানতে চান মহিলা ব্যবসায়ীরা কেমন করছেন! উইম্যান চেম্বারগুলোর অগ্রগতি কেমন হচ্ছে! আমার মেয়ে ১১ বছর ধরে একটি ব্যবসা দেখাশোনা করছে। সে ব্যবসায় অনেক ভালো করছে। সুতরাং এ থেকে আমি বলতে পারি, মহিলারা ব্যবসায় ভালো করছে ।

মহিলা ঋণখেলাপি নেই উল্লেখ করে তিনি বলেন, ব্যাংক থেকে ঋণ গ্রহণের পর মহিলারা ফেরত দেওয়ার চেষ্টা করেন। কিন্তু পুরুষই বেশি ঋণখেলাপি।

একদিন ব্যবসায় ঢাকার চেয়ে চট্টগ্রামের ব্যবসায়ীরা অনেক এগিয়ে যাবে এই আশাবাদ ব্যক্ত করে মন্ত্রী উইম্যান এসএমই এক্সপো’র উদ্বোধন ঘোষণা করেন।

চিটাগাং উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির প্রেসিডেন্ট মনোয়ারা হাকিম আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন এসএমই ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান কেএম হাবিব উল্লাহ, বাংলাদেশে ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রদুত রিনা পি সোমারনো, ফেডারেশন অব চেম্বারের প্রেসিডেন্ট শেখ ফজলে ফাহিম, এশিয়ান আরব চেম্বারের প্রেসিডেন্ট ড. পালাক্কাল নাগারাজ, ভারতীয় ডেলিগেট ড. আসিফ ইকবাল, মালয়েশিয়া ওয়াল্ড চেম্বারের প্রেসিডেন্ট ড. দাতিন মালিগা সুব্রামনিয়াম, চট্টগ্রাম চেম্বারের প্রেসিডেন্ট মাহবুবুল আলম, নারী উদ্যোক্তা লায়ন কামরুন মালেক, ডা. মুনাল মাহবুব প্রমুখ ।

চিটাগাং উইম্যান চেম্বার সভাপতি মনোয়ারা হাকিম আলী চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, উইম্যান এসএমই এক্সপো দক্ষিণ এশিয়ায় মহিলা উদ্যোক্তাদের সর্ববৃহৎ বাণিজ্য সম্মিলন। এবারের মেলায় ছোট-বড় প্রায় ৩৫০টি স্টল এবং ১৫টি প্যাভেলিয়ন রয়েছে। মেলায় নারী উদ্যোক্তাদের স্বল্পমূল্যে অংশগ্রহণের সুযোগ দেয়া হয়েছে। মেলার সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্প, সিসিটিভি ক্যামেরা, বেসরকারি নিরাপত্তারক্ষী, ফায়ার সার্ভিসসহ র্যা বের টহল নিশ্চিত করা হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, মেলায় শিশুদের জন্য বিনোদন পার্ক এবং চট্টগ্রাম নগরীর স্কুলগুলোতে শিশুদের জন্য বিনামূল্যে টিকিট সরবরাহের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। মেলার সৌন্দর্যবর্ধনে আকর্ষণীয় তোরণ, দৃষ্টিনন্দন ফোয়ারা ও টাওয়ার নির্মাণ করা হয়েছে। মেলার সার্বিক কর্মকাণ্ড পরিচালনার জন্য সার্বক্ষণিক অফিস স্থাপিত হয়েছে।

এবারের মেলায় এসএমইখাতে নারী উদ্যোক্তাদের জন্য বাংলাদেশ ব্যাংকের সার্বিক সহযোগিতায় ১২ থেকে ১৬ নভেম্বর আয়োজন করা হচ্ছে ‘৬ষ্ঠ এসএমই ব্যাংকিং ম্যাচমেকিং ফেয়ার ২০১৯’। এখানে তাৎক্ষণিক ঋণগ্রহণে আগ্রহী নারী উদ্যোক্তাদের নির্বাচন করে সংশ্লিষ্ট ব্যাংক ঋণ প্রদানে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবে ।

চিটাগাং উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির উদ্যোগে এবং রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো, দি ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার্স অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি, এসএমই ফাউন্ডেশন ও জুট ডাইভারসিফিকেশন প্রমোশন সেন্টারের সহযোগিতায় এই মেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। মেলার পার্টনার কান্ট্রি রিপাবলিক অব ইন্দোনেশিয়া, কো-স্পন্সর হিসেবে রয়েছে আরএসপিএল, এনআরবি ব্যাংক।

এএস/সিআর

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন