s alam cement
আক্রান্ত
৩৪৭৭৫
সুস্থ
৩২০০৫
মৃত্যু
৩৭১

বিএনপির সন্ত্রাসী ‘বগলে’ নিয়ে ছাত্রলীগ সভাপতির শোডাউন!

0

মাত্র তিনমাস আগে সরকারবিরোধী নাশকতা মামলায় জেল খেটে বের হয়েছেন মো. রিপন। এই সময়ে উপজেলা বিএনপির পক্ষ থেকে নির্যাতিত নেতা হিসেবে ত্রাণ সহযোগিতাও পাঠানো হয় তার ঘরে। সেই রিপনকে নিয়ে ছাত্রলীগের কার্যক্রম পরিচালনা করে বিতর্কে জড়িয়েছেন সন্দ্বীপ উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মাহফুজুর রহমান সুমন।

সোমবার (৯ নভেম্বর) সন্দ্বীপের গাছুয়া ইউনিয়নস্থ কাটগর ইসলামিয়া ফাজিল ডিগ্রি মাদ্রাসায় ছাত্রদের জড়ো করে স্লোগান দেওয়ার একটি ভিডিও চট্টগ্রাম প্রতিদিনের হাতে এসেছে। যেখানে মিছিলের সামনের সারিতে মাহফুজুর রহমান সুমনের পাশে বিএনপির চিহ্নিত সন্ত্রাসী রিপনকে দেখা যায়।

রিপন বিএনপির চিহ্নিত কর্মী বলে চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে নিশ্চিত করেছেন গাছুয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু হেনা। তবে ছাত্রলীগের কার্যক্রমে রিপনের উপস্থিতি নিয়ে কোন কথা বলতে রাজি হননি আবু হেনা।
বিএনপির সন্ত্রাসী 'বগলে' নিয়ে ছাত্রলীগ সভাপতির শোডাউন! 1
তবে এই ঘটনাকে অত্যন্ত দুঃখজনক হিসেবে অভিহিত করে স্থানীয় একজন আওয়ামী লীগ নেতা বলেন, ‘রিপনের নেতৃত্বে বিএনপির আমলে আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীদের বাড়িতে অনেক হামলার ঘটনা ঘটেছে। কয়দিন আগেও সে সরকারবিরোধী নাশকতার মামলায় জেল খেটে বের হলো। সেই রিপনকে নিয়ে যখন উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মিছিল করেন এবং সেখানে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কাউকে জানানও না সেটা খুবই দুঃখজনক।’

এদিকে শুধু রিপন নয় কাটগর মাদ্রাসায় ছাত্রলীগের মিছিলে উপস্থিত অনেককেই নিয়ে প্রশ্ন তুলছে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের একজন নেতা বলেন, রিপন ছাড়াও এই মিছিলের সামনে ছাত্রলীগ সভাপতির সঙ্গে ছিলেন রিক্সাচালক আনোয়ার, টেক্সিচালক শামসু, চা-দোকানের কারিগর কাসেম, রং মিস্ত্রি রাব্বি ও কাঠ মিস্ত্রি আকবর। এ ধরনের লোকদের নিয়ে সুমন কেমন ছাত্রলীগ গঠন করছে তাতো জানি না।

Din Mohammed Convention Hall

তবে এই মিছিলে উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সামি উদ দৌলা সীমান্তকে দেখা যায়নি। তবে এই বিষয়ে সীমান্তের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে কোনো সাড়া মেলেনি।

অন্যদিকে মাহফুজুর রহমান সুমন চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, ‘রিপনকে আমি চিনি না। স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতারাই তাকে নিয়ে গেছেন।’

স্থানীয় আওয়ামী লীগের কোন নেতা ওই অনুষ্ঠানে ছিল এমন প্রশ্নে সুমন বলেন, ‘ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সেক্রেটারিসহ সবাইকে কল করেছিলাম আমি। তারা ব্যস্ত থাকায় আসতে পারেননি।’

এআরটি/এএইচ

ManaratResponsive

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন
ksrm