বায়েজিদে পাহাড় কেটে মামলা খেল মাদ্রাসার অধ্যক্ষসহ ১১ জন

চট্টগ্রাম নগরীর বায়েজিদের আরেফিন নগর এলাকায় পাহাড় কাটার দায়ে এক মাদ্রাসা অধ্যক্ষসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে পরিবেশ অধিদপ্তর।

মঙ্গলবার (৬ সেপ্টেম্বর) পরিবেশ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম মহানগরের সহকারী পরিচালক মো. আবদুল্লাহ আল মতিন বাদি হয়ে বায়েজিদ থানায় মামলা করেন।

মামলার আসামিরা হলেন,আরেফিন নগরের তা’লীমুল কোরআর মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা হাফেজ মুহাম্মদ তৈয়ব (৫৫), মাদ্রাস পরিচালক মোস্তাক আহমেদ (৪৮), মো. আজিজুল হক (৩৫), আবদুল মান্নান (৩৫), আবদুল মাবুদ, মো. ইমরান হোসেন (৫০),আনছার উল্লাহ (৩৮), রোকেয়া বেগম (৩৫),পিতাহুল জান্নাত (২০),কামরুন নাহার (২৪) ও দেলোয়ার হোসেন (৭০)।

পরিবেশ অধিদপ্তর সূত্র জানা গেছে, সহকারী পরিচালক মো. আবদুল্লাহ আল মতিন, পরিদর্শক রুম্পা শিকদার ও পরিদর্শক মো. মনির হোসেন ঘটনাস্থল পরিদর্শনে গেলে পাহাড় কাটার প্রমাণ পান। সেখানে পাহাড় কেটে কসতঘর নির্মাণ, পাহাড়ে পানির কূপ তৈরি, পাহাড় কেটে রাস্তা তৈরি করাসহ পাহাড়ের ওপরে বিক্ষিপ্তভাবে বিভিন্ন স্পটে পাহাড় কাটা হয়েছে। এক লাখ ঘনফুট পরিমাণ পাহাড় কাটা হয়েছে।

তা’লীমুল কোরআন মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা হাফেজ মুহাম্মদ তৈয়বের নির্দেশনায় পাহাড় কাটা হয়েছে। পাহাড় কাটার জন্য কোনো অনুমতিও ছিল না। অভিযুক্তদের শুনানির নোটিশ দেওয়া হয়। শুনানিতেও তারা উপস্থিত ছিলেন না।

Yakub Group

পরিবেশ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম মহানগরের পরিচালক হিল্লোল বিশ্বাস বলেন, ‘অবৈধভাবে ১ লাখ ঘনফুট পাহাড় কাটা হয়েছে। পাহাড় কাটায় তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।’

আরএম/ডিজে

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ksrm