বাড়ি ফেরার ৪৮ ঘণ্টা আগেই ইতালিতে মারা গেলেন চট্টগ্রামের এরশাদ

0

সব ঠিক থাকলে ১৮ অক্টোবর ফ্লাইট। মাত্র দুইদিন পরেই দেশের মাটিতে নামবে বিমান। সময়টা এখন শপিং আর ব্যাগ গোছানোর। ঘরে অপেক্ষা করছে একবছর ১১ মাস বয়সী একমাত্র বাচ্চা, তিনবছর আগে বিয়ে করা স্ত্রী এবং চারমাস আগে স্বামী হারা মা। তাদের জন্য সারপ্রাইজও ছিল অন্যরকম। যা দেশের নেওয়ার সামগ্রীর তালিকা দেখে অনুমান করা যাচ্ছে। করোনার কারণে দীর্ঘদিন পর বাড়িতে ফিরছিলেন তিনি। কিন্তু ভাগ্যের নির্মম পরিহাস শেষমেশ লাশ হয়ে বাড়িতে ফিরতে হচ্ছে তাকে।

বলছিলাম ইতালি প্রবাসী চট্টগ্রামের সন্তান এরশাদের কথা। গত ১৬ অক্টোবর ইতালির রোমে নিজ শয়নকক্ষে হৃদযত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা যান তিনি। সবাই তাকে এরশান নামে চিনলেও তার প্রকৃত নাম মো. ওবায়দুল করিম। এরশাদ চট্টগ্রামের চন্দনাইশ পৌরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ড দুর্লভপাড়ার আবু সাঈদ চৌধুরীর ছেলে।

জানা গেছে, এরশাদ চন্দনাইশের গাছবাড়িয়া নিত্যানন্দ গৌরচন্দ্র সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১৯৯৯ সালে এসএসসি এবং চট্টগ্রাম পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট থেকে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ডিপ্লোমা করেন তিনি। পরবর্তীতে উন্নত জীবন গড়ার স্বপ্ন নিয়ে ২০১১ সালে পাড়ি জমান ইউরোপে। ইউরোপ এসে তিনি ইতালির রাজধানী রোম নগরীর বাংলাদেশি অধ্যুষিত লার্গো প্রেনেচ্তে নামক এলাকায় বসবাস করতেন।

সর্বশেষ দেশ থেকে ইতালি ফেরেন চলতি বছরের ২৫ জানুয়ারি। ফেরার দেড় মাস দেড়েক পর থেকে করোনায় ঘরবন্ধী জীবনযাপন করছিলেন। এছাড়া গত ১৫ জুন মারা যান তার পিতা।

রোম নগরীর পলিক্লিনিকস্থ তর-ভেরগাদা মর্গে থাকা এরশাদের মরদেহ প্রশাসনিক প্রক্রিয়া শেষে দেশে পাঠাতে একসপ্তাহ লাগবে বলে জানিয়েছেন ইতালির চট্টগ্রাম সমিতির সিনিয়র সহ-সভাপতি শেখ মো. নাছের।

এএইচ

Yakub Group

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ksrm