আক্রান্ত
২০৬৪০
সুস্থ
১৬২৯১
মৃত্যু
৩০১

বাবা-মাকে মডেল করে চট্টগ্রামের সন্তান সমরজিতের গান

0

অন্যবারের মতো এবারও যথারীতি হচ্ছে শারদীয় দুর্গাপূজাকে সামনে রেখে নতুন নতুন গান প্রকাশের আয়োজন। এই উৎসবে খানিক ব্যতিক্রম ও সার্বজনীন কিছু করার চেষ্টা করেছেন চট্টগ্রামে বেড়ে ওঠা নামি সংগীতশিল্পী সমরজিৎ রায়।

কক্সবাজারের চকরিয়ার এই সন্তান শারদীয় দুর্গাপূজাকে সামনে রেখে নিজের কথা-সুর-সংগীতায়োজনে নিজেই কণ্ঠে বেঁধেছেন ‘আমার মা’ নামের একটি বিশেষ গান। যার ভিডিওতে মডেল হিসেবে পেয়েছেন নিজেরই বাবা-মাকে। ভিডিওটির দৃশ্যধারণ করেছেন অদ্বিতীয় কাব্য ও প্রসেনজিৎ চৌধুরী।

চট্টগ্রামের আর্য সংগীতে হাতেখড়ি নেওয়া শিল্পী সমরজিৎ রায় ভারতের নয়াদিল্লীর গান্ধর্ব মহাবিদ্যালয়ের শাস্ত্রীয় সঙ্গীতের সাবেক শিক্ষক। সমগ্র ভারতের গান্ধর্ব মহাবিদ্যালয়ের সংগীতবিশারদের চূড়ান্ত পরীক্ষায় শীর্ষস্থান অধিকার করায় সমরজিৎ অর্জন করেন পণ্ডিত ডি বি পলুস্কর অ্যাওয়ার্ডসহ সাতটি সাম্মানিক অ্যাওয়ার্ড। এমনকি তবলায়ও সংগীতবিশারদ ডিগ্রি লাভ করেন তিনি প্রাচীন কলা কেন্দ্র, চণ্ডীগড় থেকে। ২০১১ সালে তার হিন্দি গানের একক অ্যালবাম ‘তেরা তসব্বুর’ ভারতের জিমা অ্যাওয়ার্ডে সেরা জনপ্রিয় অ্যালবাম বিভাগে মনোনয়ন পায়। তার সুর ও সঙ্গীত পরিচালনায় গান করেছেন কিংবদন্তী শিল্পী অনুপ জলোটা, হৈমন্তী শুক্লাসহ অনেকেই।

সমরজিৎ বলেন, ‘দুর্গাপূজা উপলক্ষে গানটি তৈরি হলেও মূলত গেয়েছি পৃথিবীর সমস্ত মাকে উদ্দেশ্য করে। আমার কাছে আসলে মা-ই সবকিছু। তাই প্রতিমার চেয়েও নিজের জন্মদাত্রী মায়ের গুরুত্ব আমার জীবনে অনেক বেশি। অনেক দিনের ইচ্ছে ছিল মায়ের জন্য একটি গান রেকর্ড করার। অবশেষে সেই ইচ্ছেটা পূরণ হচ্ছে এই উৎসবে।’

১৫ অক্টোবর সমরজিৎ রায়ের নিজস্ব ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশ হবে গানটি।

এর ভিডিওতে মডেল হিসেবে নিজের বাবা নেপাল চন্দ্র রায় এবং মা রত্না রায়কে পেয়ে ভীষণ খুশি সমরজিৎ। তার ভাষায়, ‘এতে মা ও বাবার চরিত্রে পেয়েছি নিজেরই মা-বাবাকে। তাই বিশেষ একটি গান হিসেবে এটি আজীবনের সঞ্চয় হয়ে থাকবে আমার কাছে।’

গানটির সংগীতায়োজন প্রোগ্রামিং করেছেন রণদীপ মানু। মিক্সিং ও মাস্টারিং করেছেন জেকে মজলিশ এবং অডিও ধারণ করেছেন অজয় মজুমদার। আর ভিডিও সম্পাদনায় ছিলেন মুম্বাইয়ের প্রেম প্রকাশ কর্ণ।

সিপি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ManaratResponsive

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন
ksrm