s alam cement
আক্রান্ত
৩৫১০৮
সুস্থ
৩২২৫০
মৃত্যু
৩৭১

বলিরহাটে নির্বাচনী প্রচারে হামলা ও ফাঁকা গুলি, ৪ জন আহত

0

চট্টগ্রাম নগরীর বাকলিয়ার বলিরহাট এলাকায় নির্বাচনী প্রচারণার সময় আওয়ামী লীগ ও বিএনপির সমর্থকদের সংঘর্ষে ৪ জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এসময় ফাঁকা গুলি ছোঁড়ার ঘটনাও ঘটেছে। হামলার জন্য আওয়ামী লীগ ও বিএনপি প্রার্থীর সমর্থকরা পরষ্পরকে দায়ী করছেন। বুধবার (২০ জানুয়ারি) বিকেলে ১৮ নম্বর ওয়ার্ডের বলিরহাটে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, মহানগর যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক বাদশার নেতৃত্বে ১৮ নম্বর বাকলিয়া ওয়ার্ডে বিএনপি প্রার্থী ডা. শাহদাত হোসেনের পক্ষে গণসংযোগ করছিলেন বিএনপির নেতাকর্মীরা। পরে ওই ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগের সমর্থন নিয়ে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় কাউন্সিলর নির্বাচিত হওয়া হারুনুর রশীদের ভাতিজা এমরান ও ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এনামুল হকের নেতৃত্বে ১২-১৪ জন ঘটনাস্থলে পৌঁছালে সংঘর্ষ শুরু হয়।

এই ঘটনায় আহতরা হলেন, ১৮ নম্বর ওয়ার্ড ছাত্রলীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক সোহান এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ওয়াজেদ। অন্যদিকে বিএনপির আহতরা হলেন, ছাত্রদল নেতা ইউনুস এবং নুরুদ্দিন। আওয়ামী লীগের দাবি, সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী রেজাউল করিম চৌধুরীর নির্বাচনী প্রচারণা করার সময় বিএনপি, যুবদল ও ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা অতর্কিত হামলা করে। এতে তাদের দুইজন আহত হন।

তবে বিএনপির দাবি, বলির হাটে এসে তারা পথসভা করছিলেন। এ সময় হঠাৎ ফাঁকা ফায়ার শুরু হলে তারা ছত্রভঙ্গ হয়ে যান এবং তাদের কর্মী সমর্থকদের এলোপাতাড়ি পেটানো হয়েছে। অন্যদিকে ১৮ নম্বর ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক মানিক বলেন, ‘রেজাউল করিমের প্রচারণা চালানোর সময় বিএনপির নেতাকর্মীরা অতর্কিত হামলা চালিয়ে দুইজনকে আহত করেন। আমরা পাল্টা প্রতিরোধ করেছি।’

বিএনপির মিডিয়া সেলের সদস্য সচিব মো. ইদ্রিস আলী বলেন, ‘ডা. শাহাদাতের পক্ষে যুবদলের নির্বাচনী পথসভায় আওয়ামী লীগের লোকজন হামলা চালিয়ে বেধড়ক পিটিয়ে দুইজনকে আহত করেছে। তাদের হাত-পা ভেঙে দিয়েছে। তারা ককটেল ফাটিয়েছে, গুলিও করেছে। তবে কিছুক্ষণের মধ্যেই পুলিশ সেখানে পৌঁছে দ্রুত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়। কিন্তু এই ঘটনায় এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি।’

Din Mohammed Convention Hall

বাকলিয়া থানার পরিদর্শক তদন্ত বলেন, ‘আমরা ঘটনাস্থলে আছি। দায়ীদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে। পরিস্থিতি আমাদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।’

এআরটি/কেএস

ManaratResponsive

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm