বন্দিদের নিয়ে এই প্রথম বৈঠক রাঙামাটিতে

রাঙামাটিতে প্রথমবারের মতো কারাবন্দিদের সঙ্গে আইনি সহায়তা প্রদানে বৈঠক করেছে লিগ্যাল এইড। সরকারি খরচে আইনগত সহায়তা ও পরামর্শ সেবার গুণগত মানবৃদ্ধি ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে রাঙামাটি জেলা কারাগারে এ ব্যতিক্রমী কর্মসূচির উদ্যোগ নেয় জেলা লিগ্যাল এইড অফিস।

শনিবার (৩ সেপ্টেম্বর) বিকাল ৩টায় আইনি সহায়তা প্রদানে প্রতিবন্ধকতা নিরসনে কারাবন্দি ও লিগ্যাল এইডের প্যানেল আইনজীবীদের অংশগ্রহণে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

বৈঠকে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন রাঙামাটি জেলা লিগ্যাল এইড অফিসার ও সিনিয়র সহকারী জজ মো. জুনাইদ।

তিনি বলেন, ‘সরকারের পক্ষে জাতীয় আইনগত সহায়তা সংস্থা কারাবন্দি ও সকল নিপীড়িত মানুষকে আইনগত সহায়তার জন্য নিরলসভাবে কাজ করে চলেছে। আপনারা নিঃসংকোচে ও বিনা খরচে এই সেবা নিতে পারবেন।’

এ সময় কারাবন্দিরা সরকারি খরচে আইনগত সহায়তা ও পরামর্শ পেতে ভোগান্তিসহ বিভিন্ন অভিযোগ ও অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরেন। উপস্থিত লিগ্যাল এইডের প্যানেল আইনজীবীরা এসব প্রশ্নের উত্তর দেন এবং ভবিষ্যতে আরও দায়িত্বশীলতার সঙ্গে সেবা নিশ্চিত করার প্রতিশ্রুতি দেন।

Yakub Group

বৈঠকে রাঙামাটি জেলা কারাগারের জেলার আতিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে জাতীয় আইনগত সহায়তা সংস্থার রাঙামাটির প্যানেল আইনজীবী হ্লাথোয়াই প্রু মারমা, মাকসুদা হক, সুস্মিতা চাকমা, সালিমা ওয়াহিদাসহ কারাবন্দিরা উপস্থিত ছিলেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, সরকারি খরচে জনগণের কাছে আইনগত সহায়তা পৌঁছে দিতে দেশের ৬৪টি জেলায় জাতীয় আইনগত সহায়তা প্রদান সংস্থার অধীনে জেলা লিগ্যাল এইড কার্যালয় চালু করে বিচার বিভাগ। মূলত আদালতে বিচারাধীন মামলাজট ও দীর্ঘসূত্রিতা থেকে মুক্তি এবং স্বল্পসময়ে বিরোধ মীমাংসার জন্য সংস্থাটি জেলা পর্যায়ে কাজ করছে। পার্বত্য জেলা রাঙামাটিতেও প্রতিষ্ঠানটি সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে সমন্বয় সভা, উপজেলা-ইউনিয়ন পর্যায়ে লিগ্যাল এইড কমিটি গঠনসহ বিরোধপূর্ণ ভূমিবিরোধ মীমাংসায় কাজ করছে। এছাড়া পারিবারিক এবং সামাজিক বিরোধ মীমাংসায়ও প্রশংসনীয় ভূমিকা রেখে আসছে।

সংস্থাটির তথ্যমতে, ২০২১ সালের ৯ ডিসেম্বর থেকে চলতি বছরের জুলাই পর্যন্ত ৪৮০টি আবেদন জমা হয়। এরমধ্যে ৩০০টির অধিক অভিযোগ আপসে বিরোধ মীমাংসা হয়ে আসছে। প্রায় দুই শতাধিক মামলা বর্তমানে বিচারাধীন রয়েছে। এছাড়া দুস্থ ও অসহায় পরিবারকে আইনি সহায়তা প্রয়োজনবোধে নিজস্ব প্যানেল আইনজীবী নিয়োগের মাধ্যমে আদালতে মামলা করতে সহায়তা করে আসছে সংস্থাটি।

সম্প্রতি দেশের সবচেয়ে বড় উপজেলা বাঘাইছড়ি দুর্গম আমতলী ইউনিয়নের মাহ্নিলা বাজারে বিরোধপূর্ণ ভূমি পরিদর্শন, উপজেলা সদরে ইউনিয়ন চেয়ারম্যানদের সঙ্গে সমন্বয় বৈঠক ও কাচালং উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন জেলা লিগ্যাল এইড অফিসার মো. জুনাইদ। এর আগে জেলার কাপ্তাই, কাউখালী, লংগদু, বরকলে একই কর্মসূচি পালন করেছে লিগ্যাল এইড কার্যালয়। এতে করে স্থানীয় অধিবাসীদের মধ্যে সরকারি খরচে আইনি সহায়তা পাওয়ার বিষয়ে আস্থা বেড়েছে।

ডিজে

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ksrm