বটির কোপে বাবা হাসপাতালে, অতপর ছেলের আত্মহত্যা

0

চট্টগ্রামের পটিয়ায় গলায় ফাঁস লাগিয়ে চন্দন চৌধুরী (৪০) নামের এক ব্যক্তি আত্মহত্যা করেছে। বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) দুপুর ৩টায় উপজেলার পৌর সদরের ব্রহ্মণপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত চন্দন চৌধুরী আনোয়ারা উপজেলার গুয়াপঞ্চক গ্রামের মিন্টু চৌধুরীর ছেলে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পটিয়া থানার দায়িত্বরত কর্মকর্তা (এএসআই) সোহাগ। তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার পৌর সদরের ব্রহ্মণপাড়া এলাকায় রাইবার বাড়িতে বেড়াতে এসে সবার অজান্তে একটি রুমে গালায় রশি দিয়ে আত্মহত্যা করেছে চন্দন চৌধুরী। স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে। তবে কি কারণে তিনি আত্মহত্যা করছে সেটি বলা যাচ্ছে না। এ ঘটনায় নিহতের ভাই সুজন চৌধুরী বাদি হয়ে থানায় অপমৃত্যুর মামলা করেছেন। লাশ সুরতহাল প্রতিবেদনর জন্য সন্ধ্যায় চমেক হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

নিহতের ছোট ভাই সুজন চৌধুরী বলেন, ‘আমার ভাই চন্দন চৌধুরী পারিবারিক জায়গা সম্পত্তি ভাগাভাগি নিয়ে আমার বাবা মন্টু চৌধুরীর সঙ্গে কয়েকদিন আগে মারামারি করে বুধবার সকালে বাইরার বাড়িতে চলে আসে। মারামারির একপর্যায়ে সে আমার বাবাকে বটি দিয়ে মাথায় আঘাত করে। এতে বাবা গুরুতর আহত হয়ে চমেক হাসপাতালের ২৮ নম্বর ওয়ার্ডে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে।’

এএইচ

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন