বঙ্গোপসাগরের ঢেউ আছড়ে পড়ুক তাসমানিয়ার ওপারে

সাইফুদ্দিনের জায়গায় রুবেল এবং মোসাদ্দেকের জায়গায় সাব্বির

0

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে জিতেই লড়াইয়ে টিকে থাকতে চান মাশরাফি। তবে সে জন্য শর্ত আরোপ করে দিয়েছেন তিনি। অস্ট্রেলিয়া সত্তর ভাগ দিলেও বাংলাদেশকে শতভাগ দিতে হবে। তাহলেই বঙ্গোপসাগরের ঢেউ আছড়ে পড়বে ভারত সাগর পাড়ি দিয়ে তাসমানিয়ার ওপারে। কয়েকঘণ্টা পরই বিশ্বকাপে নিজেদের মহাগুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। সেমিফাইনালের স্বপ্ন টিকিয়ে রাখতে জয়ের বিকল্প নেই টাইগারদের। আগের ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারানোর আত্মবিশ্বাসকে সঙ্গী করে নামবে মাশরাফী বিন মোর্ত্তজার দল।

বঙ্গোপসাগরের ঢেউ আছড়ে পড়ুক তাসমানিয়ার ওপারে 1
সংবাদ সম্মেলনে জয়ের জন্য শতভাগ প্রচেষ্টার কথা জানালেন ক্যাপ্টেন মাশরাফি

ক্রিকেট দলগত খেলা। তবে দলগত লড়াইয়ের ভেতরেও থাকে কিছু ব্যক্তিগত লড়াই। যে লড়াইগুলো রোমাঞ্চ ছড়ায় আলাদা করে। গড়ে দেয় ম্যাচের পার্থক্য। কখনো কখনো তো দলগত লড়াইকেও ছাপিয়ে যায় ব্যক্তিগত লড়াই! বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া ম্যাচের আগে এমনকিছু ব্যক্তিগত দ্বৈরথ নিয়ে এই আয়োজন-

সাকিব-স্টার্ক: নাম্বার ওয়ান বনাম নাম্বার ওয়ান
বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত সেরা খেলোয়াড় কিংবা সেরা ব্যাটসম্যান কে? এমন প্রশ্নের জবাবে সাকিব আল হাসানের নামই সবার আগে উচ্চারিত হবে। অন্যদিকে ব্যাটসম্যানদের জন্য চরম আতঙ্কের নাম কোনটি? আসবে মিচেল স্টার্কের কথা। বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া ম্যাচে তাই দুই সেরা খেলোয়াড়ের দ্বৈরথ রোমাঞ্চ ছড়াতে পারে।

চার ম্যাচে দুটি হাফসেঞ্চুরি ও দুটি সেঞ্চুরিতে ১২৮.০০ গড়ে ৩৮৪ রান করে সবার উপরে রয়েছেন সাকিব। ব্যাক-টু-ব্যাক সেঞ্চুরির অবিস্মরণীয় ফর্ম নিয়েই অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি হবেন টাইগার অলরাউন্ডার।

সেখানে ৫ ম্যাচে ১৩ উইকেট নিয়ে বোলারদের তালিকায় শীর্ষে (আমিরের সঙ্গে যৌথভাবে) রয়েছেন স্টার্ক। গত বিশ্বকাপের মতো এবারও দারুণ ছন্দে আছেন অজি গতিতারকা। এক ম্যাচে ৫ উইকেট এবং এক ম্যাচে নিয়েছেন ৪টি করে উইকেট। মহারণে সাকিব ও স্টার্কের দ্বৈরথ জমজমাট হবে বলেই ধারণা বিশ্লেষকদের।
বঙ্গোপসাগরের ঢেউ আছড়ে পড়ুক তাসমানিয়ার ওপারে 2
সৌম্য-কামিন্স: পাওয়ার হিটার বনাম গতিঝড়
অস্ট্রেলিয়ার বোলিং আক্রমণের আরেক সেনানী প্যাট কামিন্স। চলতি বিশ্বকাপে দারুণ ছন্দে রয়েছেন এ গতিদানব। শুরুতে ব্রেক-থ্রু এনে দেয়ার পাশাপাশি ডেথ ওভারগুলোতে কার্যকরী বোলিং নৈপুণ্য উপহার দিয়ে চলেছেন। গতির সঙ্গে সুইং, ইয়র্কার ও বাউন্সারের মিশেলে প্রতিপক্ষ ব্যাটসম্যানদের জন্য ত্রাস সৃষ্টি করে চলেছেন অস্ট্রেলিয়ান পেসার।

সেখানে চলতি বিশ্বকাপে চার ইনিংসে ব্যাটিং করে ২৪.৫০ গড়ে মাত্র ৯৮ রান করেছেন সৌম্য সরকার। এই পরিসংখ্যানে তার ব্যাটিংয়ের প্রভাবকে মোটেই স্পষ্ট করছে না। সাউথ আফ্রিকা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে যে দুটি ম্যাচে ব্যাট হাতে ঝড় তুলেছেন, সেই দুটি ম্যাচেই জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। সাউথ আফ্রিকার বিপক্ষে ৩০ বলে ৪২ এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ২৩ বলে ২৯ রান করেছেন সৌম্য। শুরুতেই ঝড় তুলে বাংলাদেশের ইনিংসকে দাঁড় করিয়ে দেয়ার পাশাপাশি প্রতিপক্ষের পরিকল্পনা এলোমেলো করে দিতে সক্ষম এ বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষেও তিনি তেমন কিছু করতে পারলে, বাংলাদেশ পারে দারুণ সম্ভাবনার ভিত।

বঙ্গোপসাগরের ঢেউ আছড়ে পড়ুক তাসমানিয়ার ওপারে 3
লিটনের এই হাসি অটুট থাকুক আজকের অস্ট্রেলিয়া ম্যাচেও।

মোস্তাফিজ-ওয়ার্নার: লড়াইটা অন্যরকম
সময় বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ডেভিড ওয়ার্নারও খুঁজে পেয়েছেন ছন্দ। ইনফর্ম ওয়ার্নার যেকোনো দলের জন্যই হুমকি। বিশ্বকাপের প্রথমদিকে ছিলেন নিজের ছায়া হয়ে। তবে পাকিস্তানের বিপক্ষে দুর্দান্ত এক সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে সামর্থ্যের প্রমাণ দিয়েছেন ওয়ার্নি। গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে তাই ওয়ার্নারকে নিয়ে বিশেষ ছক কষতে হবে বাংলাদেশকে। বল টেম্পারিং নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফিরেছেন বিশ্বকাপেই। দলকে টেনে নেয়ার পাশাপাশি নিজের লড়াইটা ওয়ার্নারের নিজেকে অন্য উচ্চতায় নেয়ারও।

Yakub Group

ডেভিড ওয়ার্নারের সঙ্গে মোস্তাফিজুর রহমানের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের কথা অজানা নয়। আইপিএলে একসময় ফিজের অধিনায়ক ছিলেন ওয়ার্নি। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনারের দুর্বলতা তাই জানা থাকারই কথা মোস্তাফিজের। যেকোনো গুরুত্বপূর্ণ সময়ে কিংবা ডেথ ওভারগুলোতে মাশরাফীর ভরসার নাম মোস্তাফিজ। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে শেষের দিকে গুরুত্বপূর্ণ উইকেট তুলে নিয়ে মাশরাফীর আস্থার প্রতিদান দিয়েছেন ফিজ। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষেও তার কাছ থেকে তেমন বোলিং নৈপুণ্য আশা টাইগারদের। ফিজ উইকেট তুললেও রান খরচে লাগাম দিতে পারছেন না। কাটার মাস্টারের যে জাদুকরী তকমা নিয়ে আবির্ভাবেই বিশ্বকে বার্তা দিয়েছিলেন, বিশ্বমঞ্চে সেটি দেখানোরও চ্যালেঞ্জ ফিজের।

বঙ্গোপসাগরের ঢেউ আছড়ে পড়ুক তাসমানিয়ার ওপারে 4
আজকের ম্যাচেও ব্যাটে-বলে জ্বলে উঠুক বিশ্বকাপের মহানায়ক হতে যাওয়া সাকিব আল হাসান

মুশফিক-ম্যাক্সওয়েল: পাওয়ার হিটার বনাম কুলম্যান গেমচেঞ্জার
উইকেটের পেছনে যেমন ঠিক, তেমনি ব্যাটিংয়েও বাংলাদেশের আস্থার নাম মুশফিকুর রহিম। মিডলঅর্ডারের ভরসা। গুরুত্বপূর্ণ সময়ে ব্যাট হাতে জ্বলে ওঠেন টাইগার তারকা। বিপদের মুখে বড় জুটি গড়তে জুড়ি নেই বাংলাদেশের উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যানের। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ব্যাট হাতে সুবিধা করতে পারেননি মুশি। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে তার কাছে বড় ইনিংস পাওনা বাংলাদেশের। ছন্দে থাকা মুশফিক হয়ে উঠতে পারেন গেমচেঞ্জার।

অস্ট্রেলিয়ার দলের জন্য তেমনি এক গেমচেঞ্জার গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। একাদশের একজন গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়। অজি দলের এক্স-ফ্যাক্টর ভাবা হয় তাকে। শেষের দিকে ব্যাট হাতে ঝড় তুলতে পারঙ্গম ম্যাক্সি। সেইসঙ্গে অজিদের পঞ্চম বোলারের অভাবও পূরণ করতে পারেন। ব্যাটের ঝড়ে যেকোনো সময় পাল্টে দিতে সক্ষম ম্যাচের গতিপথ। বাংলাদেশের বিপক্ষে হুমকি হয়ে উঠতে পারেন ফর্মে থাকা ম্যাক্সওয়েল।

এদিকে ম্যাচ ভেন্যু নটিংহ্যামে সকাল থেকেই চমৎকার আবহাওয়া। রোদ্রজ্জ্বল সকালের দেখা মিলেছে। কোথাও কোনো মেঘ নেই। মৃদু বাতাস বইলেও, বৃষ্টির সম্ভাবনা একেবারে নেই বললেই চলে। আবহাওয়ার পূর্বাভাস থেকে জানা গেছে, আজ বৃষ্টির সম্ভাবনা মাত্র ৩০ শতাংশেরও কম। সুতরাং, ভক্ত-সমর্থকরা নিশ্চিন্তে থাকতেই পারেন। যথাসময়ে খেলা শুরু হয়ে তা নির্বিঘ্নে শেষ হওয়ার সম্ভাবনাই সবচেয়ে বেশি।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm