s alam cement
আক্রান্ত
৫৬৮৮০
সুস্থ
৪৮৩৭৪
মৃত্যু
৬৬৬

ফেদেরারকে হারিয়ে উইম্বলডন চ্যাম্পিয়ন জকোভিচ

0

ফেদারার-জোকোভিচ লড়াই দেখবেন নাকি ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ড বারবার রংবদলের বিশ্বকাপের ফাইনাল দেখবেন এই নিয়ে দ্বিধা-দ্বন্দ থাকলেও দু’জায়গায় হয়েছে ইতিহাসের সেরা লড়াই। খেলাধুলা যাদের ধ্যান, জ্ঞান, প্রাণ সবকিছু তারা এর সাথে যোগ করতে পারেন ফর্মুলা ওয়ানের জমজমাট রেসিং। খেলাপ্রেমীরা গতরাতটি (১৪ জুলাই)কোনোমতেই ভুলতে পারবেন না। ক্রিকেট, টেনিস আর ফর্মুলা ওয়ান তিনটি লড়াই চলেছে ইংল্যান্ডের মাটিতে। তাই কোনটা ফেলে কোনটা দেখবেন, তাতে দ্বিধায় পড়ে গেছেন ক্রীড়াপ্রেমীরা। কারণ, দুই ম্যাচেই ছিল টানটান উত্তেজনা।

টেনিস র‍্যাংকিংয়ের এক আর দুই নম্বর খেলোয়াড়ের মাঝে শিরোপার লড়াই। এর মধ্যে উত্তেজনা থাকবে না, তা কি করে হয়! সেই উত্তজনার পরশ চলতে থাকে প্রায় পাঁচ ঘণ্টা পর্যন্ত।

ফেদেরারকে হারিয়ে উইম্বলডন চ্যাম্পিয়ন জকোভিচ 1
একের পর এক দুর্দান্ত শটে ফেদেরারকে রুখে দিয়েছেন জোকোভিচ

টেনিসের সবচেয়ে মর্যাদার আসর উইম্বলডনের ফাইনালে ইতিহাসের সেরা লড়াই উপহার দিয়ে, শেষ পর্যন্ত রজার ফেদেরারকে হারিয়ে ঐতিহাসিক এক ম্যাচের ইতি টানলেন নোভাক জোকোভিচ। সে সঙ্গে নিজের নামের পাশে আরো একটি গ্র্যান্ড স্লাম শিরোপা যোগ করলেন এই সার্বিয়ান তারকা। তবে খেলা শেষে এই ম্যাচকে সর্বকালের সেরার কাতারে নিয়ে গেছেন এই দুই খেলোয়াড়ই।

জমজমাট এই লড়াইয়ের শুরু থেকেই রোমাঞ্চের কোনো কমতি ছিল না। প্রথম সেট থেকেই সেয়ানে সেয়ানে লড়াই করেন দু’জন। যার ফলে শেষ পর্যন্ত টাইব্রেকারে গড়ায় সেটটি এবং তাতে করে প্রথম জয়টা হাসিল করে নেন জকোভিচ।

ফেদেরারকে হারিয়ে উইম্বলডন চ্যাম্পিয়ন জকোভিচ 2
টানা পাঁচঘণ্টা লড়েছেন ফেদেরার। তবুও জোকোভিচের কাছে হার মানতে হয় তাঁকে।

কিন্তু পরের সেটে ফেদেরার দেখিয়ে দিয়েছেন, কেন তাকে সর্বকালের অন্যতম সেরা টেনিস খেলোয়াড় বলা হয়। জোকোভিচকে ৬-১ পয়েন্ট ব্যবধানে উড়িয়ে দিয়ে ম্যাচে সমতা ফিরিয়ে আনেন এই সুইস তারকা।

তৃতীয় সেট যেন একদম প্রথম সেটের অনুরূপ। এখানেও হাড্ডাহাড্ডি লড়াই করেন দু’জন। এবারো এই সেটে জয় তুলে নেন জকোভিচ। ফেদেরারকে ৭-৬ পয়েন্ট ব্যবধানে হারিয়ে ম্যাচে এগিয়ে যান এই সার্বিয়ান তারকা।

চতুর্থ সেটে আবারো নিজের দাপট দেখান ফেদেরার। ৬-৪ পয়েন্ট ব্যবধানে জকোভিচকে হারিয়ে আবারো সমতায় ফেরেন এই সুইস তারকা। চার সেট মিলিয়ে কেউ এগিয়ে না থাকায় খেলা গড়ায় পঞ্চম, মানে ফাইনাল সেটে। খেলার আসল উত্তেজনাটা যেন এর জন্যই বাঁচিয়ে রেখেছিলেন বিধাতা।

এই লড়াই ক্ষণে ক্ষণে মনে করিয়ে দিচ্ছিল, ২০০৮ উইম্বলডনের বিখ্যাত ফাইনাল ম্যাচের কথা। ওই ম্যাচে ফেদেরারকে ৬-৪, ৬-৪, ৬-৭, ৬-৭, ৯-৭ ব্যবধানে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলেন রাফায়েল নাদাল। এ অবস্থায় এসে বারবার মনে হচ্ছিল, ঐতিহাসিক সেই লড়াইকে ছাড়িয়ে যাবে না তো এই ম্যাচ? অবশেষে তাই হলো।

ফেদেরারকে হারিয়ে উইম্বলডন চ্যাম্পিয়ন জকোভিচ 3
ধ্রুপদি এক লড়াইয়ের পর ফেদেরার ও জোকোভি।

ফাইনালে সেটে কেউ কাউকে ছেড়ে কথা বলেননি। একবার ফেদেরার তো আরেকবার জকোভিচ। এটাই হয়ে চলছিল। এমন চলতে চলতে ১২-১২ পয়েন্ট পর্যন্ত গড়া খেলা; কিন্তু কেউই পারছেন না সেট ব্রেক করতে। শেষ পর্যন্ত খেলা আবারো গড়ায় টাইব্রেকারে।

Din Mohammed Convention Hall

আর সেখানেই বাজিমাত করেন জকোভিচ। শেষ সেট ১৩-১২ ব্যবধানে জিতে নিজের ১৬তম গ্র্যান্ডস্লাম শিরোপা অর্জন করেন এই সার্ভিয়ান তারকা।

হারলেও এই ম্যাচকে অমর করে গেছেন ফেদেরার। পাঁচ ঘন্টার এই ম্যারাথন লড়াইয়ের ম্যাচকে উইম্বলডন ইতিহাসের সেরা ম্যাচ বলতে দ্বিধা করবে না কেউ।

ManaratResponsive

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm