প্রেমের বিয়ের আড়াই বছরে লাশ হলেন গৃহবধূ, স্বামী-শাশুড়ি আটক

চট্টগ্রামের আনোয়ারায় ভালোবেসে বিয়ে করার আড়াই বছরের মাথায় লাশ হলেন এক গৃহবধূ। এ ঘটনায় তার স্বামী ও শাশুড়িকে আটক করেছে পুলিশ।

নিহত গৃহবধূর নাম নাসরিন আকতার প্রমি (২০)। তিনি উপজেলার বারশত ইউনিয়নের পশ্চিমচাল ফতেহ আলীর বাড়ির আবদুল ছবুরের মেয়ে।

সোমবার (৬ নভেম্বর) উপজেলার বৈরাগ ইউনিয়নের উত্তর বন্দর এলাকার জয়নাল আবেদীনের ঘরে এ ঘটনা ঘটে।

লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালেে মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

এ ঘটনায় গৃহবধূর স্বামী মো. জয়নাল আবেদীন (২২) ও শাশুড়ি মনোয়ারা বেগমকে (৫০) আটক করেছে কর্ণফুলী থানা পুলিশ।

গত ২০২১ সালে বৈরাগ ইউনিয়নের উত্তর বন্দর এলাকার মো. জসিম উদ্দিনের ছেলে জয়নাল আবেদীনের সঙ্গে বিয়ে হয় নাসরিন আকতার প্রমির।

নিহতের ভাই মোহাম্মদ পারভেজ জানান, আড়াই বছর আগে প্রেমের সম্পর্কে জয়নাল আবেদীনের সঙ্গে বিয়ে হয়। তাদের সংসারে দেড় বছরের একটি ছেলে সন্তানও রয়েছে। বিয়ের কয়েক মাস পার হতে না হতেই স্বামী ও শাশুড়িসহ পরিবারের লোকজন মানসিক ও শারিরীক নির্যাতন করতো। সোমবার সন্ধ্যায়ও আমার সঙ্গে ভিডিও কলে কথা বলেছে বোন। রাত ৯টার দিকে খবর আসে আমার বোন আত্মহত্যা করেছে। আমার বোনকে তারা পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে।

বারশতের ইউপি সদস্য জমির উদ্দিন জানান, বিয়ের পর থেকে স্বামী ও শাশুড়িসহ পরিবারের লোকজন মানসিক ও শারিরীক নির্যাতন করতো তাকে। এ নিয়ে কয়েকবার বৈঠকও হয়েছিল তাদের পরিবারের মধ্যে। যা আমরা সামাজিকভাবে বৈঠকের মাধ্যমে সমাধান করি।

কর্ণফুলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জহির হোসেন বলেন, ‘নাসরিন নামের এক গৃহবধূর মৃত্যুর ঘটনায় থানায় আত্মহত্যা প্ররোচণার দায়ে তিনজনকে অভিযুক্ত করে মামলা হয়েছে। পুলিশ স্বামী ও শাশুড়িকে গ্রেপ্তার করে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট আসার পর পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

ডিজে

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!