প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগে চট্টগ্রাম আবাহনীর সামনে উড়ে গেল ফ্রেন্ডস ক্লাবও

দুর্দান্তভাবে ছুটছে চট্টগ্রাম আবাহনীর জয়রথ। চট্টগ্রাম জেলা ক্রীড়া সংস্থা (সিজেকেএস) আয়োজিত মুজিব শতবর্ষ প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগে চট্টগ্রাম আবাহনী নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে একপ্রকার উড়িয়ে দিয়েছে স্টেডিয়ামপাড়ার ক্লাব ফ্রেন্ডস ক্লাবকে।

বুধবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) চট্টগ্রাম এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত লিগের ৮ম ম্যাচে ফোর এইচ গ্রুপের পৃষ্ঠপোষকতায় গড়া চট্টগ্রাম আবাহনী ৮ উইকেটে হারায় ফ্রেন্ডস ক্লাবকে।

সকালে টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় আগের ম্যাচে চট্টগ্রাম মোহামেডানকে হারানো ফ্রেন্ডস ক্লাব। দুই ওপেনার আকিব আলী ও আব্দুল্লাহ আল হোসাইন আবাহনীর বোলারদেরকে ১৫ ওভার পর্যন্ত ঠেকিয়ে রাখলেও রান তোলার গতি ছিল শ্লথ। ৪৪ রানে উদ্বোধনী জুটি ভাঙার পর আর দাঁড়াতে পারেনি ফ্রেন্ডস ক্লাব। আবাহনীর বোলারদের স্পিনবিষে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকা ফ্রেন্ডস ক্লাবের দৌঁড় থেমে যায় মাত্র ১২০ রানে। চট্টগ্রাম আবাহনীর হয়ে আবু বকর জীবন ৯ ওভার বল করে মাত্র ১০ রান দিয়ে তুলে নেন ফ্রেন্ডসের ৪ উইকেট। এছাড়া, শোয়েব নেন ৩ উইকেট। জাহিদ জাবেদ, মোসাদ্দেক হোসেন ও তাইজুল ইসলামের ঝুলিতে যায় ১টি করে উইকেট।

জবাব দিতে নেমে চট্টগ্রাম আবাহনীকে ঝোড়ো সূচনা এনে দেন মহিউদ্দিন ও সাইদুল ইসলাম সাঞ্জু। বিশেষ করে মহিউদ্দিন নিজের ব্যাটকে তরবারি বানিয়ে ‘কচুকাটা’ করেন ফ্রেন্ডসের দুই উদ্বোধনী বোলার মনিরুজ্জামান ও মেহরাব হোসাইনকে। প্রথম ৩ ওভারেই তুলে নেন ৩৫ রান। এরপর ১৮ বলে এক হালি ৪ ও এক জোড়া ছয়ে সাজানো ৩৩ রানের মহিউদ্দিন-ঝড় থামলেও ওয়ানডাউনে নামা আবু বকর জীবন আবারও শুরু করেন ঝোড়ো হামলা। ফলে মাত্র ১০.৪ ওভারেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় চট্টগ্রাম আবাহনী। জীবন মাত্র ১৭ বলে ৫ চার আর ১ ছয়ে ৩২ রান করার পর ‘জীবন’ হারালেও শেষ পর্যন্ত ২২ বলে ৩২ রানে অপরাজিত থাকে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়েন সাঞ্জু।

এর আগে, নিজেদের প্রথম ম্যাচে শক্তিশালী এফএমসি স্পোর্টসকে বড় ব্যবধানে হারিয়ে প্রিমিয়ার লিগে যাত্রা শুরু করে চট্টগ্রাম আবাহনী।

এমএহক

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!