তৃতীয় ধাপ/ প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগে অংশ নিল অর্ধলাখ পরীক্ষার্থী

0

প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় ১৪ উপজেলা ও ৬ মহানগরে আবেদন জমা পড়ে ৯৮ হাজার ৯৭০টি। চাকরিপ্রত্যাশী পরীক্ষার্থীর মধ্যে পরীক্ষার তৃতীয় ধাপে অংশ নিয়েছে ৪৯ হাজার ৭৮২ জন পরীক্ষার্থী। আগামী ২৮ জুন চতুর্থ ধাপের পরীক্ষায় আটটি উপজেলার ৪৯ হাজার ১৮৯ জন পরীক্ষার্থীর অংশগ্রহণ করার কথা রয়েছে।

শুক্রবার (২১ জুন) সকাল সাড়ে ১০টায় পরীক্ষা শুরু হয়। নগরীর ৪৪টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ৫৩টি কেন্দ্রে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা যায়, চট্টগ্রাম জেলায় সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় এবার রেকর্ডসংখ্যক আবেদন জমা পড়েছে। ৬০০ শূন্যে পদের বিপরীতে এতো সংখ্যক আবেদন এর আগে কখনও জমা পড়েনি। তৃতীয় ধাপে ১০টি উপজেলায় এ পরীক্ষা নেওয়া হয়েছে। পরবর্তীতে শেষ ধাপে বাকি উপজেলায় পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

মহানগরের মধ্যে ডবলমুরিং থানায় পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ২ হাজার ৭৫৪ জন। পাহাড়তলী থানায় ৩ হাজার ৫৯০ জন, বন্দর থানায় ২ হাজার ৩২৫ জন, পাঁচলাইশ থানায় ৩ হাজার ৭৬ জন, চান্দগাঁও থানায় ২ হাজার ৮৫৭ জন ও কোতোয়ালী থানায় ৩ হাজার ৫৭ জন পরীক্ষার্থী রয়েছে।

এছাড়া বাঁশখালী উপজেলায় পরীক্ষার্থী রয়েছে ৭ হাজার ২৬২ জন, রাউজান উপজেলায় ৬ হাজার ২৭৬ জন, সন্দ্বীপ উপজেলায় ৩ হাজার ৯২৯ জন, ফটিকছড়ি উপজেলায় ৫ হাজার ৬৯৪ জন, আনোয়ারা উপজেলায় ৪ হাজার ৭৯৯ জন এবং লোহাগাড়া উপজেলায় পরীক্ষার্থী রয়েছে ৪ হাজার ১৬২ জন।

চট্টগ্রাম জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মনিটরিং অফিসার নুর মোহাম্মদ চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে জানান, প্রায় ৬০০ এর বেশি শূন্য পদের বিপরীতে পরীক্ষা নেয়া হয়েছে। বলতে গেলে,একটি পদের বিপরীতে প্রায় ১২ হাজার আবেদন জমা পড়েছে।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের শিক্ষা কর্মকর্তা নাসরিন সুলতানা বলেন, ‘পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে শুরু হয়েছে। প্রশ্নপত্র ফাঁসের ব্যাপারে আমরা কড়া নজরদারি রেখেছি। পাশাপাশি প্রশাসনও সর্তক রয়েছে। আশা করছি, সুষ্ঠুভাবে পরীক্ষা সম্পন্ন করা যাবে।’

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন