প্রবাসীদের সবচেয়ে বেশি বেতন দেয় সৌদি আরব, খরচ বেশি যুক্তরাজ্যে

প্রবাসীদের কাছে দীর্ঘদিন ধরে বিশ্বের অন্যতম পছন্দের গন্তব্য সৌদি আরব। উচ্চবেতনে চাকরি, নানা সুযোগ-সুবিধার দিক থেকে অনেক পশ্চিমা দেশের চেয়েই এগিয়ে মধ্যপ্রাচ্যের দেশটি। এবার জানা গেলো, বিশ্বে প্রবাসীদের বেতন দেওয়ার ক্ষেত্রে সৌদি আরবই শীর্ষে। লন্ডনভিত্তিক সংস্থা ইসিএ ইন্টারন্যাশনাল পরিচালিত সাম্প্রতিক এক জরিপে উঠে এসেছে এই চিত্র।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সৌদি আরবে বর্তমানে মধ্যম পর্যায়ের একজন প্রবাসী কর্মী বছরে গড়ে ৩ লাখ ৯৪ হাজার ৮৩ রিয়াল (১ কোটি ১৪ লাখ টাকা প্রায়) আয় করে থাকেন। গত বছরের তুলনায় এটি তিন শতাংশ কম হলেও বিশ্বের মধ্যে তা সর্বোচ্চ এবং যুক্তরাজ্যের তুলনায় ২০ হাজার ৫১৩ পাউন্ড (২৮ লাখ টাকা প্রায়) বেশি।

ইসিএ ইন্টারন্যাশনালের পারিশ্রমিক ও নীতি জরিপ ব্যবস্থাপক অলিভার ব্রাউন এক বিবৃতিতে বলেছেন, সামগ্রিক র‌্যাংকিংয়ে শীর্ষে না থাকলেও প্রবাসীদের বেতন দেওয়ার ক্ষেত্রে অবিশ্বাস্যভাবে উদার মধ্যপ্রাচ্য। এটি প্রবাসীদের সেখানে যেতে উৎসাহিত করছে। প্রবাসীদের সর্বোচ্চ বেতনদাতা হিসেবে রয়েছে সৌদি আরব।

মধ্যপ্রাচ্যে প্রবাসীদের খরচ সম্পর্কে ব্রাউন বলেছেন, সুবিধা সংক্রান্ত খরচ (কস্ট অব বেনিফিটস) তুলনামূলক কম এবং ব্যক্তিগত করের নিম্নহারের কারণে সেখানে সামগ্রিক ব্যয় আরও সাশ্রয়ী হয়, যা যুক্তরাজ্যের বিপরীত।

ইসিএ ইন্টারন্যাশনালের ‘মাই এক্সপ্যাট্রিয়েট মার্কেট পে’ জরিপে দেখা গেছে, প্রবাসী কর্মী পাঠানোর ক্ষেত্রে কোম্পানিগুলোর জন্য সবচেয়ে ব্যয়বহুল জায়গা হলো যুক্তরাজ্য। সেখানে বেতনের পরিবর্তে কর্মী প্যাকেজের সিংহভাগ চলে যায় ট্যাক্স ও বেনিফিটের পেছনে।

সাম্প্রতিক তথ্য বলছে, যুক্তরাজ্যে প্রবাসীদের বার্ষিক বেতন ও বেনিফিট প্যাকেজগুলোতে গত বছর গড়ে ৩ লাখ ৫১ হাজার ৯৯২ পাউন্ড (৪ কোটি ৯৩ লাখ টাকা প্রায়) খরচ হয়েছে, যা তার আগের বছরের তুলনায় ১১ শতাংশ বেশি। আবাসন, গাড়ি, ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের মতো বিষয়গুলোতেও খরচ বেড়েছে অর্ধেকেরও বেশি। অথচ ২০২১ সালের পর থেকে বছরে বেতন বেড়েছে গড়ে ৩ হাজার ২৯১ পাউন্ড বা পাঁচ শতাংশ।

Yakub Group

প্রবাসীদের বেতন দেওয়ায় ইউরোপীয় দেশগুলোর মধ্যে শীর্ষে এবং বিশ্বের মধ্যে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে সুইজারল্যান্ড। সেখানে প্রবাসীরা বছরে গড়ে ৭৭ হাজার ৭৬০ পাউন্ড (১ কোটি ৯ লাখ টাকা প্রায়) আয় করে থাকেন।

ব্যয়বহুল কর্মী প্যাকেজের হিসাবে বৈশ্বিক র‌্যাংকিংয়ে এ বছর সাত ধাপ এগিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এর বড় কারণ অবশ্য মার্কিন ডলারের মূল্যবৃদ্ধি। গত বছরের তুলনায় দেশটিতে বেতন ০.৪ শতাংশ কমলেও মোট প্যাকেজের খরচ ছয় শতাংশ বেড়ে ২ লাখ ১৭ হাজার ৪১৭ পাউন্ড (৩ কোটি ৪ লাখ টাকা প্রায়)।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!