প্রধানমন্ত্রীর ডাক পড়েছে করোনা পরীক্ষার কিট আবিষ্কারক ড. বিজন শীলের

0

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কথা বলার জন্য ড. বিজন কুমার শীলকে ডেকে পাঠিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে ড. বিজন কুমারকে জানানো হয়েছে, খুব শিগগিরই দুজনের সাক্ষাত হবে। এর আগে ২২ মার্চ স্বাক্ষাতের তারিখ নির্ধারিত থাকলে প্রধানমন্ত্রীর ব্যস্ততায় তা আর হয়ে ওঠেনি।

ড. বিজন কুমার শীল নোভেল (কোভিড-১৯) পরীক্ষার কিট আবিষ্কার করে আলোচনায় আসেন। তিনি যে দ্রুত পদ্ধতি উদ্ভাবন করেছেন সেটা বাস্তবায়নের জন্য রিএজেন্ট আমদানির অনুমোদনের ব্যবস্থা প্রধানমন্ত্রী নিজ উদ্যোগেই করেছেন বলে জানা গেছে।

শুধু এই অনুমতি দিয়েই তিনি বসে থাকেননি। করোনাভাইরাসের দুর্যোগ মোকাবিলায় ড. বিজনকে আরও কত বেশি কাজে লাগানো যায় সেজন্য তাকে ডেকেছেন।

ড. বিজন কুমার শীল এ বিষয়ে জানান, প্রধানমন্ত্রী আমাকে ডেকেছিলেন। ২২ মার্চ আমার যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ওখান (প্রধানমন্ত্রীর দফতর) থেকেই আবার তারিখ পরিবর্তন করা হয়েছে। কয়েকদিনের মধ্যেই আমাকে আবার জানানো হবে।

সাধারণ ঘর থেকে উঠে আসা ড. বিজন কুমার শীল বারবার দেশকে কিছু না কিছু দেওয়ার চেষ্টা করছেন। নব্বইয়ের দশকে ব্ল্যাক গোটের ভ্যাকসিন আবিষ্কার করেন তিনি। ড. বিজন ডেঙ্গুর কুইক টেস্টও উদ্ভাবন করেছিলেন। সিঙ্গাপুরে গিয়ে তিনি সার্স ভাইরাসের কুইক টেস্ট উদ্ভাবন করেন, যা চীন প্যাটেন্ট করেছে।

ড. বিজন ও তার দলের উদ্ভাবিত পদ্ধতিতে মাত্র ৫ থেকে ১৫ মিনিটের মধ্যে বলে শনাক্ত করা যাবে করোনা সংক্রমণ হয়েছে কিনা। এতে খরচ পড়বে ৩০০ থেকে ৩৫০ টাকার মতো। সরকার যদি এর ওপর ট্যাক্স-ভ্যাট আরোপ না করে তাহলে ২০০ থেকে ২৫০ টাকায় বাজারজাত করা যাবে।

বর্তমানের এই মহাদুর্যোগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ড. বিজনকে নিজ উদ্যোগে খুঁজে নিয়ে কাজে লাগাতে যাচ্ছেন, ইতিবাচক উদ্যোগ হিসেবে দেখছেন সংশ্লিষ্টরা।


এফএম/এসএইচ

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন