পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেসি কনফারেন্স অনুষ্ঠিত রাঙামাটিতে

ফৌজদারি মামলার ক্ষেত্রে পুলিশকে যথাযথভাবে গ্রেপ্তার ও তদন্তের নির্দেশনা দিয়েছেন রাঙামাটির চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. আবু হানিফ। এছাড়া আসামি গ্রেপ্তার, মালামাল জব্দ বিষয়ে যথাযথভাবে আইন অনুসরণ করে কাজ করার জন্য রাঙামাটির সকল থানার ওসি এবং সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

শনিবার (১৯ নভেম্বর) সকালে রাঙামাটি চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ভবনের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত পুলিশ-ম্যাজেস্ট্রেসি কনফারেন্সে এই নির্দেশনা দেন তিনি।

রাঙামাটির নবনিযুক্ত চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. আবু হানিফের সভাপতিত্বে কনফারেন্সে রাঙামাটির পুলিশ সুপার মীর আবু তৌহিদ, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. আব্দুল্লাহ আল মাসুদ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মারুফ আহমেদ, আনসার-ভিডিপির জেলা কমান্ড্যান্ট মো. আব্দুল মোন্তাকিম, রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ডা. শওকত আকবর, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি মোখতার আহমেদ ও সাধারণ সম্পাদক রাজীব চাকমা এছাড়াও রাঙামাটির বিচার বিভাগীয় ম্যাজিস্ট্রেটগণ, বিভাগীয় বন কর্মকর্তা ও থানার ওসিরা উপস্থিত ছিলেন।

কনফারেন্সে সভাপতির বক্তব্যে চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. আবু হানিফ বলেন, ‘বিচারকদের সবাইকে যার যার অবস্থান থেকে সর্বোচ্চ কাজ করে বিচারিক সেবা নিশ্চিত করতে হবে। এতে করে বিচারপ্রার্থীরা কাঙ্ক্ষিত সেবা পাবেন এবং মামলাজট কমে দ্রুত নিষ্পত্তি হবে।’

ডিজে

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ksrm