ফুটো হয়ে জাহাজডুবি বঙ্গোপসাগরে, এখনও নিখোঁজ ২ নাবিক, উদ্ধার ২১

উদ্ধার অভিযানে নৌ-বাহিনীর তিন জাহাজ

0

বৈরী আবহাওয়ার কারণে বঙ্গোপসাগরের কুতুবদিয়ায় জাহাজের তলদেশ ফুটো হয়ে ক্লিংকারবোঝাই দুটি লাইটার জাহাজ ডুবে গেছে। ২১ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে। এখনো নিখোঁজ রয়েছেন দুই নাবিক।

জানা গেছে, সন্দ্বীপ চ্যানেলের কাছাকাছি বঙ্গোপসাগরের কুতুবদিয়ায় আড়াই হাজার মেট্রিক টন সিমেন্ট ক্লিংকারসহ টিটু-১৮ এবং টিটু-১৯ ডুবে গেছে। দুটি জাহাজের ২১ নাবিককে নিরাপদে উদ্ধার করা হয়েছে। তবে এখনও নিখোঁজ রয়েছেন দুজন নাবিক। নৌ-বাহিনীর তিন জাহাজ এখনও উদ্ধার কাজ অব্যাহত রেখেছে।

দুটি জাহাজের ২১ নাবিককে নিরাপদে উদ্ধার করা হয়েছে।
দুটি জাহাজের ২১ নাবিককে নিরাপদে উদ্ধার করা হয়েছে।

বুধবার (৭ আগস্ট) সকাল সাড়ে ১০টায় কুতুবদিয়ায় অবস্থানরত বড় জাহাজ থেকে ক্লিংকার নিয়ে লাইটার দুটি ঢাকায় যাওয়ার পথে বৈরী আবহাওয়ার কারণে দুর্ঘটনার কবলে পড়ে একটি জাহাজ ডুবে যায়। পানির গভীরতা কম থাকায় অন্য একটি জাহাজের অর্ধডুবন্ত অবস্থায় ১১ নাবিক আর ১০ নাবিককে সুস্থ অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারকৃতদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

কোস্টগার্ড সূত্রে জানা যায়, কর্ণফুলীর মোহনা থেকে ১৮ মাইল দূরে বৈরী আবহাওয়ার কবলে পড়ে জাহাজ দুটি ডুবে যায়। বাংলাদেশ নৌবাহিনীর জাহাজ দুর্জয় একটি জাহাজের ১৫ নাবিকদের মাঝে ১০ নাবিককে সুস্থ অবস্থায় উদ্ধার করে। অন্যদিকে কোস্টগার্ডের দুটি জাহাজ দুপুরে রওনা দিয়েও বৈরী আবহাওয়ার কারণে ঘটনাস্থলে পৌঁছাতে পারেনি। বিমানবাহিনীর দুটি হেলিকপ্টারের সাহায্যে আরও ১১ জনকে উদ্ধার করা হয়।

দুটি জাহাজের ২১ নাবিককে নিরাপদে উদ্ধার করা হয়েছে।
দুটি জাহাজের ২১ নাবিককে নিরাপদে উদ্ধার করা হয়েছে।

নৌবাহিনী সূত্রে জানা যায়, খবর পেয়ে বাংলাদেশ নৌবাহিনীর জাহাজ দুর্জয়, শৈবাল, সুরভি ও সোয়াডস উদ্ধারে নেমে ২১ জন নাবিককে উদ্ধার করে। বিএস জহরুল হক ঘাটিতে এনে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। এখনও ২ নাবিক নিখোঁজ এবং তাদের উদ্ধারের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

শাহ সিমেন্টের স্থানীয় শিপিং এজেন্ট লিটমন্ড শিপিংয়ের অপারেশন ইনচার্জ জাহিদ হোসেন জানান, শাহ সিমেন্টের ক্লিংকার নিয়ে কুতুবদিয়ায় অবস্থান করছিল একটি বড় জাহাজ। সেটি থেকে ১২৫০ টন করে ক্লিংকার নিয়ে টিটু-১৮ ও ১৯ আসার সময় উত্তাল সাগরে হঠাৎ ঝড়ের কবলে পড়ে। লাইটার দুটি একপাশে কাত হয়ে ডুবতে থাকে।

কোস্টগার্ডের অপারেশন অফিসার লে. কমান্ডার সাইফুল চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, ‘ডুবে যাওয়া জাহাজের নাবিকদের উদ্বার করে নৌবাহিনীর জাহাজ দুর্জয় এবং বিমানবাহিনীর দুটি হেলিকপ্টার জহরুল ঘাটিতে নিয়ে আসে। উদ্ধারকৃত নাবিকদের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

এসআর/এসএস

Loading...
আরও পড়ুন