পটিয়ায় রাজমিস্ত্রিকে ছুরি মারা যুবককে ধরে ধোলাই দিল জনতা

1

চট্টগ্রামের পটিয়ায় এক রাজমিস্ত্রিকে ছুরি মেরে পালতে গিয়ে জনতার হাতে ধরা পড়েছে হামলাকারী। পরে তাকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশের হাতে তুলে দেয় স্থানীয়রা।

আহত রাজমিস্ত্রির নাম শরীফ উদ্দিন (২৩)। তিনি উপজেলার শোভনদন্ডী ইউনিয়নের হাতিয়ারঘোনা গ্রামের মো. সেলিমের ছেলে।

শনিবার (২০ আগস্ট) সকাল সাড়ে ৭টার দিকে স্থানীয় চামুদরিয়া বাজারের স্ট্রিল ব্রিজ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার পর স্থানীয় জনতা হামলাকারী মো. মামুনকে ধরে গণধোলাই দেয়। তিনি একই ইউনিয়নের লাউয়ারখীল গ্রামের মো. ইছার ছেলে।

জানা গেছে, প্রতিদিনের মতো রাজমিস্ত্রি শরীফ উদ্দিন শনিবার সকালে কাজের উদ্দেশ্যে ঘর থেকে বের হন। পূর্ব পরিকল্পিতভাবে তার পথরোধ করেন মামুন ও তার সহযোগীরা। এরপর লৌহার রড ও ছুরি দিয়ে শরীফের বাম হাতে, পিঠে ও পেটে আঘাত করে। এ সময় শরীফ মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। এক পর্যায়ে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসলে সহযোগীরা পালিয়ে গেলেও ধরা পড়েন মামুন।

Yakub Group

ঘটনার পর স্থানীয়রা শরীফকে উদ্ধারে প্রথমে পটিয়ার একটি বেসরকারি হাসপাতাল নিয়ে যায়। কিন্তু অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেলে আনা হয়।

শরীফ বর্তমানে চট্টগ্রাম মেডিকেলের ২৪ নম্বর সার্জারি ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তার পেটে অপারেশন হওয়ার কথা রয়েছে।

এ ঘটনায় শরীফের বাবা মো. সেলিম বাদী হয়ে মামুন (২০), মোজাম্মেল (৪৫), ইছা (৪৬), মো. মুছা (৫৫) ও মো. আসিফ মোস্তফার (২৬) বিরুদ্ধে পটিয়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন।

মো. সেলিম জানান, তার ছেলের পেট-পিঠ,হাতসহ শরীরের বিভিন্ন জায়গায় ছুরিকাঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এরমধ্যে পেটের চামড়া ফুটো হয়ে ভুড়ি দেখা যাচ্ছে।

পটিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রাশেদুল ইসলাম বলেন, ‘রাজমিস্ত্রিকে ছুরিকাঘাত করার ঘটনায় থানায় লিখিত একটি অভিযোগ দায়ের হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

ডিজে

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ksrm