পটিয়ায় জেলা পরিষদের জায়গা বেহাত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের যোগসাজশে

পরিদর্শনে জেলা প্রশাসকের তদন্ত টিম

চট্টগ্রামের পটিয়ায় জেলা পরিষদের কোটি টাকার সম্পত্তি ব্যক্তি মালিকানায় দখল করে রাখা হয়েছে। পটিয়া থানার পুকুরের দক্ষিণ-পশ্চিম পাড়ের আদর্শ মিষ্টি ভাণ্ডারের পেছনে দোকান মালিক ও জেলা পরিষদের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের যোগসাজশে এ সম্পত্তি অবৈধভাবে দখল করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। জেলা পরিষদ তাদের জায়গার সীমানা নির্ধারণ করলেও এখন আরও একটি গার্ড ওয়াল নির্মাণ শুরু করেছে।

এরমধ্যে আদর্শ মিষ্টি ভাণ্ডারের পেছনে জেলা পরিষদের প্রায় তিন শতক জায়গা রেখে গার্ড ওয়াল করা হচ্ছে।

অভিযোগ ওঠেছে, চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের অসাধু কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ম্যানেজ করে উচ্ছেদের পরিবর্তে গুরুত্বপূর্ণ জায়গা ব্যক্তি মালিকানায় ছেড়ে দিচ্ছেন। এজন্য জেলা পরিষদ গার্ড ওয়াল নির্মাণের জন্য প্রায় ২০ লাখ টাকা বরাদ্দ দেন।

জেলা পরিষদের জায়গা ব্যক্তি মালিকানায় দখল করার বিষয়টি স্থানীয়রা চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক, প্রকৌশলীসহ সংশ্লিষ্টদের অবহিত করেছেন। এর প্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার বিকালে একটি তদন্ত টিম সরেজমিন পরিদর্শন করেছে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসকের প্রধান নির্বাহী সাব্বির আহমদ, প্রকৌশলী মনিরুল ইসলাম, সহকারী প্রকৌশলী রতিন্দ্র সেন।

Yakub Group

জানা গেছে, পটিয়া থানা পুকুরটি চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের। এটি সংরক্ষণের জন্য পুকুরের চারিদিকে রিটার্নিং ওয়াল, গার্ড ওয়াল ও বাউন্ডারি ওয়াল দেওয়া হয়। এরমধ্যে পুকুরের পূর্ব, দক্ষিণ ও পশ্চিম পাড়ে কিছু জায়গা আগে থেকে বিভিন্নভাবে বেদখল হয়। দক্ষিণ-পশ্চিম পাড়ের আদর্শ মিষ্টি ভাণ্ডারের পেছনে প্রায় তিন শতক জায়গায় টিনের ছাউনি দেওয়া অবৈধ একটি স্থাপনা রয়েছে। এসব অবৈধ স্থাপনা জেলা পরিষদ উচ্ছেদ করলেও তা পুনরায় দখল হয়ে যায়।

স্থানীয় এক ব্যবসায়ী জানান, সঠিক তদারকির অভাবে জেলা পরিষদের জায়গা বিভিন্ন কৌশলে মানুষের দখলে চলে যাচ্ছে। মিষ্টির দোকানের ভেতরে জেলা পরিষদের সীমানা নির্ধারণের ওয়াল রয়েছে। এর বাইরে গিয়ে প্রায় তিন শতক জায়গা নতুন করে দখল করার পাঁয়তারা চলছে।

জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী সাব্বির আহমদ বলেন, ‘জেলা পরিষদের জায়গা বেদখল হওয়ার খবর পেয়ে আমরা সরেজমিনে পরিদর্শন করে এসেছি। অফিসে বসে আলাপ-আলোচনা করে পরবর্তী নির্দেশনা দেওয়া হবে।’

চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের সহকারী প্রকৌশলী রতিন্দ্র সেন জানান, জেলা পরিষদের থানার পুকুরের চারিদিকে আগে থেকেই সীমানা নির্ধারণ রয়েছে। এরমধ্যে দক্ষিণ ও পশ্চিম পাড়ে নতুন করে একটি গার্ড ওয়াল নির্মাণের কাজ চলছে। যাতে কেউ আর জেলা পরিষদের জায়গা দখল করতে না পারে। তবে কিছু কিছু ব্যক্তি জেলা পরিষদ থেকে জায়গা লিজ নিয়েছেন। লিজের বাইরে কেউ জেলা পরিষদের জায়গা দখল করে থাকলে তা চিহ্নিত করে উচ্ছেদ করা হবে।

ডিজে

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ksrm