পটিয়ায় খামার ভেঙে গরু লুট, খামারির স্ত্রী-মেয়েকে মারধরের অভিযোগ

চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার দক্ষিণ আশিয়া রশিদপুর গ্রামের একটি খামার ভেঙে গরু লুট করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ঘটনায় খামারির স্ত্রী বাদি হয়ে বৃহস্পতিবার (২৫ আগস্ট) সকালে পটিয়া সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। শুনানি শেষে মামলাটি তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিল করার জন্য পটিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি)বিচারক বিশ্বশ্বর সিংহ নির্দেশ দেন।

এর আগে বিষয়টি নিয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ করার পরও পুলিশ কোনো ব্যবস্থা না নেওয়ায় নিরুপায় হয়ে খামারির স্ত্রী খদিজা বেগম বাদি হয়ে আদালতে এ মামলাটি করেন।

জানা গেছে, উপজেলার আশিয়া ইউনিয়নের রশিদপুর গ্রামে শেখ তাহেরের একটি গরুর খামার রয়েছে। ওই খামার নিয়ে একই এলাকার মো. এনামসহ কয়েকজনের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। এই বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষরা প্রায় সময় রাতের আঁধারে গরুর খামার ও তাদের বাড়িতে ইট-পাটকেল মারতো।

গত ৮ আগস্ট রাত ৯টার দিকে লোহার রড ও লাঠিসোটা নিয়ে প্রতিপক্ষের লোকজন হামলা করে। এ সময় প্রতিবাদ করতে গেলে খদিজা বেগম ও তার মেয়ে মারজিনা তানজিম মীমকে শ্লীলতাহানির চেষ্টা চালায়। এক পর্যায়ে লোহার রড দিয়ে তাদের পেটানো হয়। ঘটনার পর সিসিটিভি ক্যামরা, বৈদ্যুতিক মিটার ও এলইডি টিভি ভাঙচুর করে খামার থেকে একটি গরু লুট করে নিয়ে যায়। এতে তাদের ১ লাখ ৮০ টাকা ক্ষতি হয়েছে বলে অভিযোগ করেন খদিজা বেগম।

Yakub Group

মামলায় মো. এনাম, মো. বেলাল, মো. দেলোয়ার ওরফে আংকুর, মো. হেলাল, আবু ছৈয়দ আকতার হোসেন আসামি করা হয়।

মামলার বাদি খাদিজা বেগম জানান, মামলার প্রধান আসামি মো. এনাম উপজেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি পদে আছেন। তিনি দলের প্রভাব খাটিয়ে এলাকায় নানা ধরনের অপরাধ করছেন। আমার মেয়ে মারজিয়া তানজিম মীমকে অপহরণ করে হত্যার হুমকিও দেন। বিষয়টি থানা পুলিশকে ঘটনার পর লিখিতভাবে জানানো হয়।

ডিজে

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ksrm