পটিয়ার উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী রাসেলের মনোনয়ন আবারও বাতিল

0

ঋণখেলাপির দায়ে পটিয়ার ছনহরা ইউপির উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মামুনুর রশিদ রাসেলের মনোনয়ন আবারও বাতিল করা হয়েছে।

রোববার (২২ মে) দুপুরে জেলা সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা মো. জাহাঙ্গীর হোসেনের কার্যালয়ে প্রার্থীতা ফিরে পেতে আপিল করেন রাসেল। আপিল কর্তৃপক্ষ দীর্ঘ শুনানি শেষে রিটার্নিং কর্মকর্তার পূর্বের আদেশ বহাল রেখেছেন। তার মনোনয়ন আবারও বাতিল ঘোষণা করে কমিশন।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আরাফাত আল হোসাইনী বলেন, ‘ঋণখেলাপি হওয়ার কারণে যাচাই-বাছাইয়ে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মামুনুর রশিদের মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছিল আগেই। রোববার জেলা সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ে শুনানিতে প্রার্থীতা বাতিলের আদেশ বহাল রেখেছেন। পরবর্তীতে আগামী ২৬ মে প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষ দিন পর্যন্ত তিনি উচ্চ আদালতে আপিলের সুযোগ পাবেন। আদালত যদি তার প্রার্থীতা ফিরে পাবার আদেশ দেন তাহলে তিনি নির্বাচনে অংশ নিতে পারবে।’

এছাড়াও স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আবদুর রশিদ দৌলতী, মো. সাহাবুদ্দিন, মো. জাহিদুল হকের মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা করা হয়।

এ ব্যাপারে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মামুনুর রশিদ রাসেলের সঙ্গে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও কথা বলা সম্ভব হয়নি।

Yakub Group

গত ২৬ ডিসেম্বর পটিয়া উপজেলার ১৭ ইউনিয়নে ইউপি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে ছনহরায় ভোটকেন্দ্র দখল করে জোরপূর্বক ভোট নেওয়াসহ বিভিন্ন অভিযোগে ২টি কেন্দ্রে ভোট বাতিল করা হয়। পরে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আবদুর রশিদ দৌলতী আরও ৩টি ভোটকেন্দ্রে ভোট কারচুপির অভিযোগ তুলে নির্বাচন কমিশনে একটি লিখিত অভিযোগ করেন।

অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তদন্ত টিম সত্যতা পায় এবং আবদুর রশিদ দৌলতী উচ্চ আদালতে একটি রিট মামলা করেন। পরে গত ৭ ফেব্রুয়ারি স্থগিত ২টি ভোটকেন্দ্রের নির্বাচন সম্পন্ন করা হয়। নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী মুক্তিযোদ্ধা শামসুল আলম বিজয়ী হলেও এটি স্বতন্ত্র প্রার্থী আবদুর রশিদ দৌলতী প্রত্যাখান করে উচ্চ আদালতে যান। ওই মামলায় উচ্চ আদালত গেজেট স্থগিত করেছে। এরমধ্যে বিবাদী নৌকার প্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা শামসুল আলম গত ২৫ মার্চ মারা গেলে উপনির্বাচনে নৌকা প্রতীকের দলীয়ভাবে হিসেবে তার ছেলে মামুনুর রশিদ রাসেল মনোনয়ন পেয়েছেন। আগামী ১৫ জুন অনুষ্ঠিত হবে উপনির্বাচন।

ডিজে

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm