পটিয়ায় মাজেদার হ্যাটট্রিক, শাহরুকে হারিয়ে এমদাদের প্রথম বিজয়

বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে সকাল থেকেই চট্টগ্রামের পটিয়ায় তৃতীয় ধাপের উপজেলা নির্বাচনে স্থগিত কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে।

বুধবার (৫ জুন) সকাল ৮টা থেকে শুরু হওয়া কেন্দ্রটির আশপাশের ভোটাররা এসে সারিবদ্ধভাবে লাইনে দাঁড়িয়ে তাদের পছন্দের দুই ভাইস চেয়ারম্যানকে ভোট দিতে দেখা গেছে।

কেন্দ্রটির ৩ হাজার ৬১৫ জন ভোটারদের মাঝে বেশিরভাগ নারী ভোটারদের উপস্থিত লক্ষ্য করা গেছে। ১ হাজার ৭৭৬ জন ভোটার তাদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিয়েছেন। তার মধ্যে ৭২টি ভোট বাতিল হয়ে ৪৯ শতাংশ ভোট পড়েছে কেন্দ্রটিতে।

এদিকে উপজেলার কাশিয়াইশ ইউনিয়নের পূর্ব পিঙ্গলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এ ভোট কেন্দ্রে বিশৃঙ্খলা এড়াতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য নিয়োজিত রাখা হয়।

নির্বাচন কমিশনের হিসেব মতে, ১২৮টি কেন্দ্রের মধ্যে ১২৭টি কেন্দ্রের মধ্যে ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৭৭৭ ভোটে পিছিয়ে থাকা বই প্রতীকের প্রার্থী ডা. এমদাদুল হাসান পেয়ে পেয়েছেন ১ হাজার ৩৬৫ ভোট, তিনি মোট ভোট পেয়েছেন ২৪ হাজার ৪০৮ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী উড়োজাহাজ প্রতীকের ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী আবু ছালেহ মুহাম্মদ শাহরিয়ার শাহরু ৭৭৭ ভোটে এগিয়ে থাকার পরও ৪১০ ভোট পেয়ে হেরে গেছেন। তার মোট ভোট ২৪ হাজার ২৬০ ভোট। শাহরু হেরেছেন ১৪৮ ভোটের ব্যবধানে।

বিপরীতে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ১৬৩ এগিয়ে থাকা নারী নেত্রী মাজেদা বেগম শিরু কলসি প্রতীকে ৮৪৮ ভোট পেয়েছেন। তিনি মোট ভোট ২৫ হাজার ৭৪২ পেয়ে হ্যাট্রিক বিজয় লাভ করেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী সাজেদা বেগম পেয়েছেন ৮৩৬ ভোট। তার মোট ভোট ২৫ হাজার ৫৬৭ ভোট। সাজেদা হেরেছেন ১৭৫ ভোটের ব্যবধানে।

পটিয়া উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. আরিফুল ইসলাম বলেন, ‘শান্তিপূর্ণ ভোট গ্রহণের মধ্যদিয়ে স্থগিত হওয়া ৩৪ নম্বর পূর্ব পিঙ্গলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের প্রাপ্ত ফলাফলে বই প্রতীকে ভাইস চেয়ারম্যান পদে এমদাদুল হাসান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে কলস প্রতীকে মাজেদা বেগম শিরুকে বেসরকারিভাবে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছে।

এর আগে গত ২৯ এপ্রিল চেয়ারম্যান পদে দোয়াত-কলম প্রতীকে দিদারুল আলমকে বেসরকারিভাবে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছিল। উপজেলার পূর্বের ১২৭টি ও বুধবারের ১টি কেন্দ্রসহ সর্বশেষ ১২৮টি কেন্দ্রের ফলাফল।

গত ২৯ মে সকালে ভোট গ্রহণ শুরুর ঘণ্টা খানেক পর কাশিয়াইশ ইউনিয়নের পূর্ব পিঙ্গলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৩৪ নম্বর ভোট কেন্দ্রে স্থানীয় চেয়ারম্যান আবুল কাশেমের নেতৃত্বে ২৫০-৩০০ জনের সংঘবদ্ধ বহিরাগত সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে কেন্দ্রটির প্রিজাইডিং অফিসার মো. শহিদুল্লাহ রায়হানের কাছ থেকে জোর করে বেশ কিছু অব্যবহৃত ব্যালট পেপারসহ নির্বাচনী সরঞ্জাম ছিনতাই করে।

ঘটনাটি প্রিজাইডিং অফিসার তার সংশ্লিষ্টদের জানালে তাৎক্ষণিকভাবে ভোট কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ বন্ধ রাখা হয়। এরপর সেদিন দুপুরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসকসহ আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। এরপর নির্বাচন কমিশনের নির্দেশে কেন্দ্রটির ভোট গ্রহণ স্থগিত করা হয়।

এ ঘটনায় ১ জুন রাতে কেন্দ্রটি প্রিজাইডিং অফিসার মো. শহীদুল্লাহ রায়হান বাদি হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। মামলাটিতে ২৫০/৩০০ জন অজ্ঞাত আসামি করা হয়।

এর আগে গত ৩০ মে অতিরিক্ত জেলা নির্বাচন অফিসার ও ৬ষ্ঠ উপজেলা পরিষদ সাধারণ নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. শহিদুল ইসলাম প্রামানিক স্বাক্ষরিত এক গণবিজ্ঞপ্তিতে ৫ জুন বুধবার স্থগিত হওয়া কেন্দ্রটির পুনরায় ভোট গ্রহণের আদেশ জারি করেন।

ডিজে

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!