আক্রান্ত
১৪৪৮৯
সুস্থ
২৪৮৩
মৃত্যু
২৩৩

‘নারী-পুরুষ সমতা রুখতে পারে সহিংতা’

0

‘নারী-পুরুষ সমতা রুখতে পারে সহিংসতা’— এই স্লোগানকে সামনে রেখে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের উদ্যেগে নগরীতে পালিত হলো আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ দিবস।

এ উপলক্ষে চসিকের উদ্যোগে রোববার (৮ ডিসেম্বর) সকালে চট্টগ্রাম নগরীর জামায়াতুল ফালাহ মসজিদ প্রাঙ্গণ থেকে বের করা হয় বর্ণাঢ্য র্যা লি। পরে র্যা লিটি নগরীর গুরুত্বপূর্ণ মোড় প্রদক্ষিণ করে জিইসি কনভেনশন পৌঁছালে সেখানে চসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সামসুদ্দোহার সভাপতিত্বে নির্ধারিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিটি মেয়র আজম নাছির উদ্দিন।

এতে বক্তব্য দেন চসিক কাউন্সিলর ছালেহ আহমদ চৌধুরী, সংরক্ষিত ওর্য়াড কাউন্সিলর আবিদা আজাদ, এলআইইউপিসির টাউন ম্যানেজার সরওয়ার হোসেন খান, নারী নেত্রী কোহিনুর আক্তার, আনোয়ারা আলম।

প্রধান অতিথির বক্তেব্যে সিটি মেয়র বলেন, ‘দেশের অর্ধেক জনগোষ্ঠী নারী। নারীকে বাদ দিয়ে দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়।’

এদেশের সমাজব্যবস্থা মূলত পুরুষতান্ত্রিক মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘এ সমাজ ব্যবস্থায় পুরুষ নারীকে তার সমকক্ষ নয় বরং প্রতিযোগী হিসেবেই ভাবে। অন্যদিকে নারীদের মনস্তাত্ত্বিক কাঠামো ঠিকভাবে গড়ে না উঠায় সহিংসতার মাত্রা বাড়ছে। এ ধরনের সহিংসতা বন্ধে সকলের দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন প্রয়োজন।’

দৃষ্টিভঙ্গি পরির্বতনের ব্যাপারে পুরুষদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘নারীকে শুধু নারী কিংবা প্রতিযোগী হিসেবে না দেখে মানুষ হিসেবে দেখতে হবে। তাদের মর্যাদা দিতে হবে। সমাজে পুরুষ তান্ত্রিক দৃষ্টিভঙ্গি, সামাজিক অস্থিরতা, অশিক্ষা-কুশিক্ষার বলি হচ্ছে নারীরা। এ বিষয়ে সমাজের প্রতিটি স্তরে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে।

এ সময় নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধে সরকার গৃহীত বিভিন্ন উদ্যোগের কথা তুলে ধরে সিটি মেয়র বলেন, ‘নারী ও শিশু নির্যাতন বন্ধে সরকার জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করেছে। যেখানে নারী ও শিশু নির্যাতনের ঘটনা ঘটছে সেখানেই দ্রুততম সময়ে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। কিন্তু নির্যাতন বন্ধ করা সরকারের একার পক্ষে সম্ভব নয় তাই সমাজের সবাইকে এই বিষয়ে এগিয়ে আসতে হবে।’

নারীদের উদ্দেশ্য মেয়র বলেন, ‘আপনারা সচেতন হোন, ঐক্যবদ্ধ হোন তাহলে সমাজে আমূল পরিবর্তন আসবে। আলোকিত সমাজ প্রতিষ্ঠা হবে।’

এ সময় আগামী ১৪ ডিসেম্বর এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়নে ৫ হাজার ৮শ জনের মাঝে প্রায় ৬ কোটি টাকার অনুদান এবং ১ জানুয়ারি থেকে ৪১ ওর্য়াডে ৪১ হাজার মেয়র হেলথ কার্ড বিতরণের ঘোষণা দেন মেয়র।

আরোও উপস্থিত ছিলেন চসিক কাউন্সিলর মোরশেদ আলম, সাহেদ ইকবাল বাবু, মোবারক আলী, মো. আবুল হাসেম, মো. শফিউল আলম, সংরক্ষিত ওর্য়াড কাউন্সিলর জেসমিন পারভীন জেসী, মোছাম্মৎ ফারজানা পারভীন, মেয়রের একান্ত সচিব আবুল হাসেমসহ প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন প্রকল্পের কর্মকর্তাবৃন্দ।

এএ/এসএস

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ManaratResponsive

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন
ksrm