s alam cement
আক্রান্ত
৩৪৪৬৬
সুস্থ
৩১৭৭৫
মৃত্যু
৩৭১

নাছির-নওফেলের ভরসায় সরে দাঁড়ালেন দক্ষিণ বাকলিয়ার ‘বিদ্রোহী’ মান্নান

চট্টগ্রাম সিটির ভোট

1

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ১৯ নম্বর দক্ষিণ বাকলিয়া ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী নুরুল আলমকে সমর্থন দিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন বিদ্রোহী প্রার্থী মো. আব্দুল মান্নান। তবে এই মুহূর্তে প্রার্থিতা প্রত্যাহারের সুযোগ না থাকলেও দলীয় প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী প্রচার প্রচারণা চালাবেন তিনি। নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আ জ ম নাছির উদ্দিন ও স্থানীয় সাংসদ মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলের মধ্যস্থতায় তিনি নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন— এমনটি জানিয়েছেন মান্নান নিজেই।

বৃহস্পতিবার (৭ জানুয়ারি) আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী রেজাউল করিম চৌধুরীর কাছে লিখিতভাবে নিজের এই মনোভাবের কথা জানান মো. আব্দুল মান্নান।

চসিক নির্বাচনে দলের নির্দেশ মেনে কোনো বিদ্রোহী প্রার্থীর নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর প্রথম ঘটনা এটি। আব্দুল মান্নান দক্ষিণ বাকলিয়া ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের গত কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক। এই মুহূর্তে দলীয় কোন পদ পদবিতে নেই তিনি।

অন্যদিকে দলের মনোনয়ন পাওয়া নুরুল আমিন ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনের ঘনিষ্ঠজন হিসেবে পরিচিত নুরুল আনোয়ার বাহারের বেয়াই।

নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর বিষয়ে আব্দুল মান্নান চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, ‘আমি দলের মনোনয়ন চেয়ে পাইনি। কিন্তু নেতাকর্মীদের আগ্রহে আমি নির্বাচনে প্রার্থী হই। আমার ধারণা ছিল দল হয়তো সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করতেও পারে। কিন্তু সেটা যখন হয়নি, তখন আমার মনে হলো দলের সিদ্ধান্ত মেনে নেওয়াটা আমার দায়িত্ব।’

Din Mohammed Convention Hall

তিনি বলেন, ‘নৌকাকে বিজয়ী করাই সব কিছুর ওপরে রাখছি আমি। এখন যদি দলীয় প্রার্থী আর আমি এক সাথে নির্বাচনে থাকি তাহলে দলের ক্ষতি হওয়ার আশংকাও আছে। এ কারণে আমি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

সিনিয়র নেতাদের উদ্যোগেই এই প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন হয়েছে মন্তব্য করে আব্দুল মান্নান বলেন, ‘আমাকে আমাদের সাবেক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন ভাই, আমার এলাকার সাংসদ মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল ভাই ডেকে নিয়ে গিয়ে বুঝিয়েছেন। মেয়র প্রার্থী রেজাউল করিম ভাইও বলেছেন আগামীর রাজনীতির কথা চিন্তা করে আমি যেন নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াই। আমি উনাদের কথা মেনেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

আব্দুল মান্নানের এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে ওই ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী নুরুল আলম বলেন, ‘নেত্রীর ও দলের সিদ্ধান্ত মেনে নেওয়ায় উনাকে ধন্যবাদ। এখানে মেয়র ও কাউন্সিলর পদে দলীয় প্রার্থীর জয়ের জন্য আমরা সবাই একসাথে কাজ করবো।’

কেএস/সিপি

ManaratResponsive

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

1 মন্তব্য
  1. সাব্বির চৌধুরী বলেছেন

    আমি ২২ নং এনায়েত বাজার ওয়ার্ড এর স্বতন্ত্র কাউন্সিলর প্রার্থী । আমি আওয়ামী লীগ এর দলীয় প্রার্থীর পক্ষে সমর্থন জানিয়ে গত ৩ জানুয়ারি ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি ও অ্যাড ইব্রাহিম হোসেন বাবুল এর সমন্বয়ে নির্বাচনের লড়াই থেকে সরে এসে দলীয় প্রার্থীর প্রচারণায় কাজ করছি । আমি কিভাবে আপনাদের কাছে নিউজ পাঠাতে পারি জানাবেন দয়া করে ।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন
ksrm