নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তে আবারও আরসা-আরএসও গোলাগুলি, নিহত ১

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুমের তমব্রু সীমান্তের কোনারপাড়ার শূন্যরেখায় নতুন করে আবারও গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এতে রোহিঙ্গা ক্যাম্পের এক রোহিঙ্গা গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান। আহত হন আরেক রোহিঙ্গা।

নিহত রোহিঙ্গার নাম হামিদ উল্লাহ (২৭)। আর আহত হয়েছেন মহিদ উল্লাহ (২৫)।

বুধবার (১৮ জানুয়ারি) সকাল থেকে এই গোলাগুলি শুরু হয় বলে জানান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রোমেন শর্মা।

ইউএনও বলেন, ‘ঘটনাটি যেহেতু শূন্যরেখায় সেখানে আন্তর্জাতিক রীতি অনুযায়ী বিজিবিসহ সংশ্লিষ্টদের হস্তক্ষেপ করার এখতিয়ার নেই। তারপরও সীমান্তের এই পরিস্থিতি নিয়ে বিজিবি সতর্ক অবস্থানে রয়েছে এবং প্রশাসন এই ব্যাপারে সার্বক্ষণিক খোঁজ-খবর রাখছে।’

নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. জাহাঙ্গীর আজিজ বলেন, ‘সকাল থেকে অব্যাহত গোলাগুলির শব্দ শোনা যাচ্ছে। সেখানে কি হচ্ছে বলা যাচ্ছে না। ঘটনায় স্থানীয়রা চরম আতঙ্কে রয়েছে।’

উখিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)শেখ মোহাম্মদ আলী বলেন, ‘দুপুর ৩টায় শূন্যরেখার রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে দুজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় কুতুপালং আশ্রয়শিবির সংলগ্ন এমএসএফ হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। এ সময় চিকিৎসক একজনকে মৃত ঘোষণা করেন।’

Yakub Group

তবে আহত রোহিঙ্গার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে জানান ওসি।

ডিজে

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ksrm