ধেয়ে আসছে বুলবুল: চট্টগ্রামে ৪ নম্বর সতর্কতা সংকেত

0

ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ আরও শক্তিশালী হয়ে ধেয়ে আসছে। বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত সব ধরনের নৌযানকে অতিসত্বর নিরাপদ আশ্রয় নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। একই কারণে দেশের সমুদ্র বন্দরগুলোকে ৩ নম্বর ও চট্টগ্রামের উপকূলীয় অঞ্চলগুলোকে ৪ নম্বর সতর্কতা সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

চট্টগ্রামের উপকূলীয় এলাকা থেকে সরে সাইক্লোন শেল্টারে যাওয়ার জন্য অনুরোধ জানিয়েছে প্রশাসন।

শুক্রবার (৮ নভেম্বর) সকাল থেকে চট্টগ্রামের বিভিন্ন জায়গায় গুড়িগুড়ি বৃষ্টি হচ্ছে। সকাল থেকে আকাশ মেঘাচ্ছন্ন রয়েছে। চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের ১০ নম্বর ওয়ার্ডে বঙ্গোপসাগরের উপকূলীয় স্থান থেকে সাধারণ মানুষকে সরিয়ে নেওয়ার জন্য ৪ হাজার স্বেচ্ছাসেবক প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিশনার আবদুল মান্নান চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, ‘প্রশাসনের পক্ষ থেকে বুলবুল মোকাবিলার জন্য পুর্ববর্তী ও পরবর্তী প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। সিটি করপোরেশনের গাড়ি, শ্রমিক ও সেবক সবাইকে দুর্যোগ মোকাবেলায় প্রস্তুত রাখা হয়েছে। নগরের রাস্তাঘাট পরিষ্কারের জন্য ব্যবস্থা গ্রহণসহ উপকূলীয় এলাকায় সাইক্লোন শেল্টার প্রস্তুত রাখা হয়েছে।সব জেলা উপজেলায় জরুরি সভা করে সার্বিক প্রস্তুতির জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।’

এছাড়াও প্রস্তুত আছে রেড ক্রিসেন্টের সেচ্ছাসেবী দল। ফায়ার সার্ভিস পুলিশ ও স্থানীয় প্রশাসন জরুরি সভা করে প্রস্তুত হচ্ছে বলে জানা যায়।

ঘুর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ উপকূলের দিকে দ্রুত অগ্রসর হওয়ায় চট্টগ্রাম বন্দরকে ৪ (চার) নম্বর বিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

শুক্রবার রাতে আবহাওয়া অধিদপ্তর থেকে এ কথা জানানো হয়েছে— ‘বুলবুল’ চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ৭৯৫ কিলোমিটার দক্ষিণ দক্ষিণ-পশ্চিমে, কক্সবাজার থেকে ৭৩৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে, মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ৭৩৫ কিলোমিটার দক্ষিণে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ৭০৫ কিলোমিটার দক্ষিণে অবস্থান করছিল।

পূর্বাভাসে বলা হয়, ঘূর্ণিঝড়টি আরও শক্তিশালী হয়ে উত্তর উত্তর-পশ্চিম দিকে এগিয়ে আসতে পারে। ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের ৬৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৯০ কিলোমিটার। যা ১০০ কিলোমিটার পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। প্রবল ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের কাছে সাগর খুবই বিক্ষুব্ধ রয়েছে।
আবহাওয়াবিদরা ধারণা করছেন— ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ এখন যেভাবে এগোচ্ছে এতে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের খুলনা এবং বরিশাল উপকূলের দিক দিয়ে আঘাত হানতে পারে। তবে বুলবুলের গতিবেগ সিডরের মতো হবে না। বুলবুলের কারণে বাতাসের গতিবেগ ১০০ কিলোমিটারের মধ্যে থাকার সম্ভাবনা বেশি। এটি ৯ নভেম্বর রাতে অথবা ১০ নভেম্বর সকালের দিকে উপকূলে আঘাত করতে পারে।

জরুরি প্রয়োজন এবং তথ্যের জন্য কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। যোগাযোগ- ০৩১-৬১১৫৪৫,০১৭০০৭১৬৬৯১।

এসআর/এসএস/এএস

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন