ধর্ষিতার বাবাকে উল্টো ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করলেন চেয়ারম্যান!

0

কক্সবাজারের চকরিয়ায় কিশোরী ধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষককে কোনো শাস্তি না দিয়ে উল্টো ধর্ষিতার পিতাকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করলেন ইউপি চেয়ারম্যান দিদারুল হক সিকদার। ঘটনাটি শুক্রবার (২৫ ডিসেম্বর) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিষয়টি ছড়িয়ে পড়লে তোলপাড় শুরু হয় কক্সবাজারজুড়ে।

ধর্ষিত কিশোরীর পিতার অভিযোগ- একসপ্তাহ আগে ধর্ষিত ওই কিশোরী রামপুরায় খালার বাসায় বেড়াতে আসে। প্রতিমধ্যে সাহারবিল বাজার এলাকার বাসিন্দা লালু নামের অজ্ঞাত এক যুবক তাকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। পরে ওই যুবক তাকে চারদিন ধরে বাসায় আটকে রেখে ধর্ষণ করে।

এই ঘটনায় রোববার (২৩ ডিসেম্বর) উপজেলার কোনাখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি দিদারুল হক সিকদারের বাড়িতে সালিশ বসলে চেয়ারম্যান ধর্ষকের বিচার না করে উল্টো ধর্ষিত কিশোরীর বাবাকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা ঘোষণা করে। একইসঙ্গে আগামী সোমবারের (২৮ ডিসেম্বর) মধ্যে জরিমানার টাকা পরিশোধ করার নির্দেশ দেন ওই চেয়ারম্যান।

ধর্ষিত কিশোরীর পিতা বলেন, মেয়ে অপহরণ ও ধর্ষণের বিষয়ে গত ২৩ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় থানায় অভিযোগ করেন তিনি। অভিযোগের কিছুক্ষণের মধ্যে কোনাখালী ইউপি চেয়ারম্যান দিদারুল হকের মাধ্যমে ধর্ষণের শিকার কিশোরী ও ধর্ষককে থানায় হাজির করা হয়। পরে তার (চেয়ারম্যান দিদার) জিম্মায় থানা এরিয়াস্থ বাড়িতে নিয়ে গিয়ে গত তিনদিন ধরে আটক রেখে ধর্ষণের বিচার করে।

তিনি বলেন, এলাকার চেয়ারম্যান আমার মেয়ে ও আমাকে তিনদিন ধরে আটকে রেখে বিচারের আশ্বাস দিয়ে মেয়েকে বিয়ে দেওয়ার চাপ প্রয়োগসহ উল্টো ৫০ হাজার টাকা জরিমানা ঘোষণা করেন।

ধর্ষণের বিচারের বিষয়ে কোনাখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সামশুল আলম বলেন, দিদার চেয়ারম্যান জোর করে ছেলে-মেয়ে দুইজনকে ধরে এনে চকরিয়া থানার উত্তর পাশের বাড়িতে আটকে রেখে ধর্ষণের বিচার বসিয়েছে। এমনকি আইনিভাবে কোনো সহায়তাও পেতে দিচ্ছে না বলে অভিভাবকের কাছ থেকে শুনেছেন।

অভিযুক্ত কোনাখালী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান দিদারুল সঙ্গে যোগযোগ করা হলে কোনো সাড়া মেলেনি।

এই বিষয়ে চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের বলেন, তিনি আমার থানায় ভিকটিমসহ অভিযুক্ত ছেলেকে এনেছিল। পরে স্থানীয়ভাবে মিমাংসার কথা বলে থানা থেকে নিয়ে যায়।

ধর্ষণের বিচার চেয়ারম্যান করতে পারেন কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি হিসেবে তিনি বিচার করতে পারেন।

এএইচ

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm