দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে রিজিয়া রেজার নজরকাড়া শোডাউন

শত শত নারীর মিছিল এসে মিলিত হয়েছে কাজীর দেউরি প্রাঙ্গণে। চোখে তাদের রাজ্যের উচ্ছ্বাস। মুখে মুহুর্মুহু শ্লোগান- জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু। মিছিলটি যখন সম্মেলনস্থলে প্রবেশ করছিল তখন উপস্থিত সকলের দৃষ্টি ফিরে যায় সেদিকে।

সাতকানিয়া-লোহাগাড়া থেকে শত শত নারী নিয়ে এই মিছিলযোগে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে এসেছেন রিজিয়া রেজা চৌধুরী। বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য রিজিয়া রেজা চৌধুরী।

সোমবার (১২ ডিসেম্বর) এম এ আজিজ স্টেডিয়াম সংলগ্ন জিমনেশিয়ামের সামনের মাঠে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে এভাবে নজর কেড়েছে তাঁর শোডাউন।

কয়েকশ’ নারী নেতাকর্মী নিয়ে চট্টগ্রামের নগরীর এম এ আজিজ স্টেডিয়াম সংলগ্ন জিমনেশিয়ামের সামনের মাঠে সম্মেলন স্থলে যোগ দেন তিনি।

এ বিষয়ে রিজিয়া রেজা চৌধুরী বলেন, ‘১৭ বছর পর প্রাণের সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার সম্মেলন অনুষ্ঠিত হলো। এই সম্মেলন জাতীয় রাজনীতির জন্য গুরুত্বপূর্ণ। বিগত এক যুগেরও বেশি সময় ধরে সাতকানিয়া, লোহাগাড়াসহ দক্ষিণ চট্টগ্রামের নারীদের মাঝে জাগরণ সৃষ্টি করতে আমরা কাজ করেছি। রক্ষণশীল এলাকা হওয়ায় মৌলবাদি অপশক্তি আওয়ামী লীগ নিয়ে বিভ্রান্তিকর তথ্য রটিয়ে অপপ্রচার চালিয়েছে। আমরা সে অপপ্রচারের জবাবে ঘরে ঘরে গিয়েছি। যার ফলাফল আজকের সম্মেলনে বিপুল পরিমাণ নারীর উপস্থিতি। যা ৭-৮ বছর আগে কল্পনাও করা যায়নি।’

রিজিয়া রেজা আরও বলেন, ‘জননেত্রী শেখ হাসিনা চট্টগ্রাম এসে যে বার্তা দিয়ে গেছেন তারপর আর ঘরে বসে থাকা যায় না। এখন মাঠে-ময়দানে ঘরে ঘরে গিয়ে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আবারও আওয়ামী লীগকে নির্বাচিত করতে মা-বোনদের উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরতে হবে। এ কাজ বাস্তবায়নে নেতাকর্মীদের উজ্জীবিত রাখতে দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অত্যন্ত কার্যকর ভূমিকা রাখবে।’

Yakub Group

দক্ষিণ চট্টগ্রাম আওয়ামী লীগ সংশ্লিষ্টরা বলছেন, রক্ষণশীল এলাকা ও মৌলবাদি সংগঠনের আধিপত্যের এই অঞ্চলে নারীদের কাছে আওয়ালী লীগ, মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শের রাজনীতির চর্চা করছেন রিজিয়া রেজা চৌধুরী। তিনি আওয়ামী লীগকে এই অঞ্চলের নারীদের মাঝে তুলে ধরতে ঘরে ঘরে গিয়েছেন গত ১০ বছর ধরে। এখন নারীরা আওয়ামী লীগে সক্রিয় হয়েছে তার নেতৃত্বে। যার ফলে সাতকানিয়া-লোহাগাড়া নয়, গোটা দক্ষিণ চট্টগ্রামজুড়েই রিজিয়া রেজা চৌধুরীকে নারীরা রাজনৈতিক অভিভাবক মনে করছেন।

সাতকানিয়ার বাসিন্দা ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সদস্য ইমরান হোসেন বলেন, ‘আওয়ামী লীগের নারীদের ভোটের রাজনীতিতে এখন রিজিয়া রেজা চৌধুরী একজন ম্যাজিক ম্যান। এই অঞ্চলে অনেকে নেতা হয়েছে। কিন্তু পাঁচ শতাংশ নারীদেরও তারা আওয়ামী লীগকে চেনাতে পারেনি। বিপরীতে রিজিয়া রেজা চৌধুরী সাতকানিয়া-লোহাগাড়ার তথা দক্ষিণ চট্টগ্রামে হাজারো নারীকে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে সক্রিয়ভাবে যুক্ত করে মাঠে নামিয়েছেন। দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে রিজিয়া রেজার নেতৃত্বে নারীদের বিশাল অংশগ্রহণ তা আবারও প্রমাণ করলো।’

সাতকানিয়া ছদাহা ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য ও নারী নেত্রী হামিদা বেগম চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, ‘দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন উপলক্ষে সাতকানিয়া-লোহাগাড়ার উপজেলা থেকে নারীদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে কয়েকদিন ধরে জোর তৎপরতা চালিয়েছেন মহিলা আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য রিজিয়া রেজা চৌধুরী। এই সম্মেলনে যোগ দিতে সাতকানিয়া ও লোহাগাড়ার মোট ২৭টি ইউনিয়ন থেকেই তিনি নারী নেতাকর্মীদের উদ্বুদ্ধ করতে বিভিন্ন কর্মসূচি হাতে নিয়েছেন। যার ফলে সম্মেলনে শত শত নারী স্বতস্ফুর্ত অংশ নিয়েছে।’

এ বিষয়ে সাতকানিয়া উপজেলার মহিলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি হাবিবা নাজনীন মুন্নি বলেন, ‘একটি অপশক্তি দেশকে অস্থিতিশীল করতে তৎপর হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে দলকে সংগঠিত রাখতে ও নেতাকর্মীদের সক্রিয় রাখতে এই মুহুর্তে দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অত্যন্ত যুগোপযোগী ও কার্যকর পদক্ষেপ৷’

তিনি আরও বলেন, ‘সাতকানিয়া-লোহাগাড়া তথা দক্ষিণ চট্টগ্রামজুড়ে রিজিয়া রেজা চৌধুরী ঘরে ঘরে নারীদের কাছে জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন বার্তা পৌঁছে দিচ্ছে। তাঁর ডাকে সাড়া দিয়ে দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে শত শত নারী মিছিল যোগে উপস্থিত হয়েছে।’

চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমদ এমপি’র সভাপতিত্বে সম্মেলনে উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি।

ভার্চ্যুয়ালি যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্য রেখেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ, শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম এ সালাম, চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দিন, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এটিএম পেয়ারুল ইসলাম।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ksrm