আক্রান্ত
১৮২৪৪
সুস্থ
১৪৩৬১
মৃত্যু
২৮৪

মনোনয়ন প্রত্যাহার পর্যন্ত অপেক্ষা করবে বিএনপি / ঢাকা উত্তরে মিন্টু নয় মাহী!

mahi_88951

আসন্ন ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী সমর্থনে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিতে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের দিন পর্যন্ত অপেক্ষা করবে বিএনপি। আর প্রতীক বরাদ্দের পর দলীয় প্রার্থীরা আসবেন প্রকাশ্যে। ঢাকা উত্তরে মেয়র পদে আবদুল আউয়াল মিন্টুর বিকল্প হিসেবে মাহী বি.চৌধুরীকে ভাবছেন বিএনপির নীতি নির্ধারকরা। দলের একাধিক সিনিয়র নেতার সঙ্গে কথা বলে এমনটা জানা গেছে।

ঢাকা উত্তর সিটি নির্বাচনে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুল আউয়াল মিন্টুর মনোনয়নপত্র বাতিল হওয়া পর কৌশল গত কারণে দলীয় মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের নাম আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা থেকে বিরত রয়েছে বিএনপি। ৯ এপ্রিল মনোনয়নপত্র  প্রত্যাহারের পরেই অর্থ্যাৎ আগামী সপ্তাহে ২০ দলীয় জোটের মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করা হবে বলে দলের সূত্র জানায়। এদিকে ঢাকা উত্তর সিটি নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী কে হবেন তা নিয়ে দলের ভেতরে ও জোটভুক্ত দলগুলোর সঙ্গে আলোচনা চলছে। আবদুল আউয়াল মিন্টুর মনোনয়নপত্র বাতিলের পর অনেকে ভেবেছিলেন তার ছেলে তাবিথ আউয়াল বিএনপির সমর্থন পেতে যাচ্ছেন। কিন্তু সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে বিএনপির নীতি নির্ধারকরা সেখান থেকে সরে এসে বিকল্পধারা বাংলাদেশের যুগ্ম মহাসচিব মাহী বি চৌধুরীরকে মিন্টুর বিকল্প মেয়র প্রার্থী হিসেবে ভাবছেন। এমন ইঙ্গিতও দিয়েছেন নির্বাচন পর্যবেক্ষণ ও প্রার্থী বাছাই কমিটির একাধিক নেতা। মিন্টুর মনোনয়নপত্র শেষমেষ বহাল না হলে মাহী বি চৌধুরীরকে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা দেওয়া হতে পারে।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আ.স.ম হান্নান শাহ বলেন, দুই সিটিতেই দলীয় সমর্থনে প্রার্থী ঘোষণা করা হবে মনোনয়ন প্রত্যাহারের পরে। আর প্রতীক বরাদ্দের পরই তারা সামনে আসবেন। মাহী বি চৌধুরীর দিকে ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, অনেক সময় দুধের স্বাদ ঘোলে মেটাতে হয়। যখন দুধ চেয়ে না পাওয়া যায় তখন ঘোল ছাড়া আর উপায় কী।

একই রকম ইঙ্গিত দিয়েছেন দলের স্থায়ী কমিটির আরেক সদস্য লে. জেনারেল (অব.) মাহবুবুর রহমান। তিনি আমাদের সময়.কমকে বলেন, ঢাকা উত্তরে মেয়র পদে কাকে সমর্থন দেওয়া হবে এ বিষয়ে চিন্তা-ভাবনা চলছে, এখনো ৯ এপ্রিল পর্যন্ত সময় আছে। যাই করা হোক না কেন, ২০ দলীয় জোটের সবার সঙ্গে আলোচনা করেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। তিনি বলেন, উত্তরে আবদুল আউয়াল মিন্টুর ছেলে তাবিথ আউয়াল মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। ওখানে সে আছে। দলীয়ভাবে আলোচনা চলছে, এখনো দল থেকে কাউকে সমর্থন দেওয়া হয়নি।

এ প্রসঙ্গে মাহী বি চৌধুরী বলেন, আমি শহীদ জিয়ার আদর্শ বুকে ধারণ করি। যারা শহীদ জিয়ার আদর্শ বুকে ধারণ করে তারা তো এ দাবি করতেই পারে। আমি আশা করি ২০ দলীয় জোট শেষ পর্যন্ত আমাকে সমর্থন দেবেন। মিন্টুর মনোনয়নপত্র বৈধ হলে সেক্ষেত্রে আপনি কী সিদ্ধান্ত নেবেন, সেটা সময় আসলে বলা যাবে। সে পর্যন্ত অপেক্ষা করুন।

ঢাকার দুই সিটিতে মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই শেষে উত্তরে বাদ পড়েছেন বিএনপির হেভিওয়েট প্রার্থী আব্দুল আউয়াল মিন্টু। এরই মধ্যে আপিলও করা হয়েছে তার পক্ষে। এই অবস্থায় বিএনপি বিকল্প কাউকে মেয়র প্রার্থী হিসেবে সমর্থনের কথা ভাবতে শুরু করে। সেক্ষেত্রে আব্দুল আউয়াল মিন্টুর ছেলে তাবিথ আউয়াল বা বিকল্প ধারার মাহী বি চৌধুরীর নাম শোনা যাচ্ছে জোরে সোরে। ২০ দলীয় জোটের সমর্থন পাবেন কিনা এব্যাপারে নিশ্চিত কোনো কথা বলতে পারেননি আবদুল আউয়াল মিন্টুর ছেলে তাবিথ আউয়াল। তিনি বলেন, এখনো পর্যন্ত কোনো রাজনৈতিক দলের সঙ্গে আমার যোগাযোগ হয়নি বা আমিও সমর্থনের বিষয়ে কারোর সঙ্গে যোগাযোগ করিনি। দলের সূত্র জানায়, ঢাকা দক্ষিণ সিটি নির্বাচনে দল সমর্থিত প্রার্থী নিয়ে তেমন কোনো জটিলতা নেই। যদিও এখানে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসের প্রার্থিতা দলীয়ভাবে নিশ্চিত। তবে বিএনপির আরেক মেয়র প্রার্থী আবদুস সালাম দলীয় সর্মথনের তালিকায় রয়েছেন। এই দুই নেতাকে ইতোমধ্যে কোর্ট থেকে মামলায় জামিন নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।  তাদের সব মামলায় জামিনের চেষ্টাও চালানো হচ্ছে। যিনি সব জটিলতা থেকে মুক্ত হবেন তারই মিলবে দলীয় সমর্থন। আর দুজনের কেউ মুক্ত হতে না পারলে তখন দলের আন্তর্জাতিকবিষয়ক সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপন ২০ দলীয় জোট সমর্থিত মেয়র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। কোনো কারণে প্রার্থী সমর্থনের ব্যাপারে দলীয়ভাবে ঘোষণা করা সম্ভব না হয় তাহলে দুই সিটিতে কার পক্ষে কাজ করতে হবে সে ব্যাপারে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার নির্দেশমত নেতাকর্মীরা কাজ করবেন।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ManaratResponsive

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।

আরও পড়ুন
ksrm