টেকনাফে বন্দুকযুদ্ধে ২ মাদক ব্যবসায়ী নিহত

0

কক্সবাজারের টেকনাফে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। রোববার (৫ এপ্রিল) রাত ১টার দিকে হোয়াইক্যং ইউনিয়নের ঝিমংখালী চিংড়ি প্রজেক্ট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

নিহতরা হলেন টেকনাফ পৌরসভার পুরাতন পল্লানপড়া এলাকার সুলতান আহমেদের ছেলে মাহমুদ উল্লাহ (২৬) ও হোয়াইক্যং ঝিমং খালীর জাফর আলমের ছেলে মোহাম্মদ মিজান (২৪)।

টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ। তিনি বলেন, রোববার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে টেকনাফ থানার সামনে সন্দেহজনক একটি মাইক্রোবাসে তল্লাশি চালিয়ে ৫ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। এ সময় চালক মাহমুদ উল্লাহকে আটক করে পুলিশ। পরে তার স্বীকারোক্তি মতে রাত ১টায় উপজেলার হোয়াইক্যংয়ের জিমংখালী চিংড়ি প্রজেক্ট এলাকায় মজুদ রাখা ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধারে যায় পুলিশ। এ সময় ইয়াবা ব্যবসায়ীকে পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি করে তাকে ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। পরে পুলিশও অত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়। হামলাকারীরা পালিয়ে গেলে ঘটনাস্থল থেকে গুলিবদ্ধ অবস্থায় দুজনকে উদ্ধার করে টেকনাফ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। সেখান থেকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

ঘটনাস্থল থেকে আরও ১০ হাজার ইয়াবা, দুটি এলজি, গুলি, খালি খোসা ও একটি মাইক্রোবাস জব্দ করে পুলিশ।

অভিযান শেষে ফেরার পথে বাসস্টেশন এলাকায় পৌঁছলে জব্দকৃত মাইক্রোবাসের ইঞ্জিনে আগুন লেগে মাইক্রোবাসটি পুড়ে যায়। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক খানে আলম বলেন, ‘পুলিশ গুলিবিদ্ধ দুই জনকে নিয়ে আসে। তাদের শরীরে তিনটি করে গুলির চিহ্ন রয়েছে। আহত পুলিশ সদস্যদের চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।’

আহত পুলিশ সদস্যরা হলেন এসআই সুজিত, এএসআই নাইমুল হক, ফকরুজ জামান ও কনস্টেবল সিকান্দার।

এএইচ

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm