জোড়া মৃত্যুর সাথে চট্টগ্রামে একদিনে দেড়শ ছাড়াল শনাক্ত

0

পর পর দুদিন ৩ জন করে মৃত্যুর পর চট্টগ্রামে করোনায় গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেলেন আরও ২ জন। তবে এই সময়ে আশঙ্কাজনকভাবে বেড়ে গেছে শনাক্ত। নতুন করে করোনার জীবাণু পাওয়া গেছে ১৫৮ জনের দেহে।

এ নিয়ে চট্টগ্রামে মোট আক্রান্ত গিয়ে দাঁড়াল ৫৪ হাজার ৭৪০ জনে। এদের মধ্যে মারা গেছেন ৬৩৭ জন।

শনিবার (১২ জুন) সকালে সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে প্রকাশিত প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানা যায়।

গত ২৪ ঘণ্টায় কক্সবাজার মেডিক্যাল কলেজ ল্যাব ও চট্টগ্রামের সরকারি-বেসরকারি ৭টি ল্যাবে ১ হাজার ৪টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। তাতে শনাক্ত ১৫৮ জনের মধ্যে নগরের ৯২ জন এবং উপজেলার ৬৬ জন।

এর মধ্যে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে ১৬৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৬৫ জনের দেহে করোনার জীবাণু পাওয়া যায়।

চট্টগ্রামের প্রধান করোনা পরীক্ষাগার বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি) ল্যাবে ৩৬৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। তাতে ৩৫ জনের দেহে করোনার উপস্থিতি পাওয়া যায়।

Yakub Group

চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) ল্যাবে ১৮৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এতে ৩০ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে।

চট্টগ্রামের বেসরকারি ল্যাবগুলোর মধ্যে শেভরন ক্লিনিক্যাল ল্যাবরেটরিতে ২০২ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১৩ জনের করোনা পজিটিভ আসে।

এছাড়া, চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতাল ল্যাবে ১৬ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২ জন, এপিক হেলথ কেয়ার ল্যাবে ১৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৭ জন এবং মেডিক্যাল সেন্টার হাসপাতাল ল্যাবে ১০ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৪ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে।

অন্যদিকে, কক্সবাজার মেডিক্যাল কলেজ ল্যাবে চট্টগ্রামের ৪২ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৪ জনের শরীরে করোনা ভাইরাসের অস্তিত্ব মিলেছে।

তবে, এদিন চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিম্যাল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় (সিভাসু) ল্যাব, ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল ল্যাব, জেনারেল হাসপাতালের রিজিওনাল টিবি রেফারেল ল্যাবরেটরি (আরটিআরএল) এবং পটিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নমুনা পরীক্ষা করা হয়নি।

এমএহক

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ksrm