জিপিএ-৫ পাবে না ভেবে পালিয়ে যাওয়া ছাত্রটি হোটেলবয়ের কাজ নিয়েছিল রংপুরে

0

এসএসসিতে পদার্থবিজ্ঞান পরীক্ষা দেওয়ার পরই তার মনটা খারাপ হয়ে যায়। বারবার তার মনে হতে থাকে, পদার্থবিজ্ঞানে আর এ-প্লাস পাওয়া হবে না। সেটাই যদি না হয়, তাহলে আর ভালো কোনো কলেজেও ভর্তি হওয়া যাবে না। এ সবকিছু ভেবে হতাশ কিশোরটি একটি চিরকুট লিখে বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়।

সেই চিরকুটে লেখা ছিল, ‘আম্মু আমি চলে যাচ্ছি। আমাকে তোমরা ক্ষমা করে দিও। আমার কাছে বাসা ছেড়ে চলে যাওয়া ছাড়া কোনো রাস্তা খোলা ছিল না। রেজাল্ট জানি না কী হবে। তবে এটা নিশ্চিত যে জিপিএ-৫ আসবে না। সব দোষ আমার।’

গত বৃহস্পতিবার (৩০ ডিসেম্বর) এসএসসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ হওয়ার পর দেখা গেল পালিয়ে যাওয়া সেই ছাত্রটি ঠিকই জিপিএ-৫ পেয়েছে। ওইদিনই সে তার মোবাইল ফোনটি চালু করে। বিশেষ প্রযুক্তির সহায়তায় পুলিশ তার অবস্থান শনাক্ত করে রংপুরে। এরপর সেখান থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়।

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের ছলিমপুরে ঘটেছে এই ঘটনা। আর চিরকুট লিখে পালিয়ে যাওয়া ছাত্র আনাস মো. মোস্তাকিম হককে (১৫) রংপুর থেকে উদ্ধার করার পর রোববার (২ জানুয়ারি) সকালে পরিবারের সদস্যরা রংপুর থেকে তাকে সীতাকুণ্ডে নিয়ে আসেন।

আনাস মো. মোস্তাকিম হক চট্টগ্রামের নাসিরাবাদ সরকারি উচ্চবিদ্যালয়ের বিজ্ঞান বিভাগ থেকে এবার এসএসসি পরীক্ষা দেয়। পদার্থবিজ্ঞান পরীক্ষা খারাপ হওয়ায় মানসিকভাবে সে অস্থির ছিল। এর একপর্যায়ে গত ২২ ডিসেম্বর চিরকুট লিখে বাড়ি থেকে পালিয়ে রংপুরে চলে যায় সে।

এ ঘটনার পর দিন ২৩ ডিসেম্বর তার বড় ভাই আজমাইন ফয়সাল হক বাদী হয়ে সীতাকুণ্ড থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন।

পুলিশকে আনাস জানিয়েছে, ২২ ডিসেম্বর সে বাসে করে রংপুর দর্শনা মোড় এলাকায় চলে যায়। সেখানকার সিলসিলা হোটেলে সে থাকা-খাওয়ার বিনিময়ে হোটেলবয়ের কাজ নিয়েছিল।

সিপি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm