‘ছাত্রলীগ থেকে গুন্ডা বের হয়’— বলেই ভাইরাল চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগের শীর্ষ নেতা

‘ছাত্রলীগত্তুন জেন্ গুন্ডা অক্কল বেরয়, সন্ত্রাস-অক্কল বেরয়, গত্তে গত্তে গত্তে গত্তে ছাত্রলীগ ক্যান গরি গরন্ পরিবো ইয়ান আঁরা জানি’ (ছাত্রলীগ থেকে গুন্ডা বের হয়, সন্ত্রাস বের হয়, করতে করতে করতে করতে ছাত্রলীগ কিভাবে করতে হয় সেটা আমরা জানি)— চট্টগ্রামের আঞ্চলিক ভাষায় এমন মন্তব্য করেছেন চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সুভাষ মল্লিক সবুজ।

মঙ্গলবার (২০ সেপ্টেম্বর) চট্টগ্রাম কলেজে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষের পর গণমাধ্যমে এসব কথা বলেন সবুজ। ওই সংঘর্ষের সময় সুভাষ মল্লিক সবুজের সমর্থকরা কলেজের সাধারণ ছাত্রদের ওপর হামলা চালায় বলে অভিযোগ রয়েছে। এমনকি কয়েকজন ছাত্রীও গণমাধ্যমের কাছে তাদের ওপর হামলার অভিযোগ এনেছেন।

এ সময় চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি মাহমুদুল করিমকে উদ্দেশ্যে করে সুভাষ মল্লিক সবুজ বলেন— ‘আমি চ্যালেঞ্জ করে বলছি, হেডাম থাকলে সামনাসামনি দাড়াতে বলবেন।’

তিনি বলেন, ‘আমি চ্যালেঞ্জ দিচ্ছি মাহমুদুল করিম যদি সামনাসামনি দাঁড়িয়ে ফাইট করতে পারে, তবে আমি রাজনীতিতে জুতার মালা পড়ে চট্টগ্রাম কলেজ থেকে যাব। জুতার মালা পরেই যাবো।’

মঙ্গলবার (২০ সেপ্টেম্বর) দুপুরে নিজেদের গ্রুপে কর্মী সংগ্রহ করতে গিয়ে সংঘর্ষে জড়ায় চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারন সম্পাদকের অনুসারীরা। এতে উভয় পক্ষে অন্তত ১০ জন আহত হন। সংঘর্ষে কলেজের উদ্ভিদবিদ্যা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর মোছাম্মৎ নাজমা বেগমের কক্ষটিও ভাঙচুর করেন কলেজ ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

Yakub Group

তবে এই ঘটনায় এখনও থানায় কোন পক্ষই মামলা করেনি বলে জানা গেছে।

বিবাদমান দুই গ্রুপের মধ্যে সভাপতি মাহমুদুল করিমের সমর্থকরা শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল এবং সাধারণ সম্পাদক সুভাষ মল্লিক সবুজের সমর্থকরা স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর নূর মোস্তফা টিনুর অনুসারী।

বিএস/সিপি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ksrm