চুয়েটে শেষ বর্ষের শিক্ষার্থীদের শিক্ষা সমাপনী অনুষ্ঠানের সূচনা

‘সংবর্তের ক্ষিপ্ত ডাক, একসাথে একসাত’— স্লোগানকে সামনে রেখে চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (চুয়েট) শেষ বর্ষের শিক্ষার্থীরা বর্ণাঢ্য আয়োজনে তাদের শিক্ষা সমাপনী উৎসবের সূচনা করেছে।

শুক্রবার (২ ডিসেম্বর) বিকেল তিনটায় সূচনা অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন ছাত্রকল্যাণ পরিচালক রেজাউল করিম। এ সময় চুয়েটের স্থাপত্য অনুষদের ডিন মোহাম্মদ কামরুল হাসান, সহকারী ছাত্রকল্যাণ পরিচালক সাইফুল ইসলাম, সহকারী অধ্যাপক শাহজালাল মিশুকসহ বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষকরা উপস্থিত ছিলেন।

সূচনাপর্বে ফ্ল্যাশমবে অংশ নেন করেন বিদায়ী ব্যাচের শিক্ষার্থীরা। এরপর মশাল মিছিল, আলোক উৎসব ও কনসার্ট অনুষ্ঠিত হয়। সন্ধ্যায় প্রতিটি হলের সামনে মশাল মিছিল বের হয়ে সেটি বিশ্ববিদ্যালয়ের গোলচত্বরে গিয়ে শেষ হয়। এরপর শুরু হয় আলোক উৎসব। রাতে কনসার্টে পারফর্ম করেন জনপ্রিয় ব্যান্ড বে অফ বেঙ্গল এবং কার্নিভ্যাল।

উৎসব পরিচালনার জন্য ১০ জন শিক্ষকের উপদেষ্টা কমিটি গঠন করা হয়। এবারের এ উৎসবের আহবায়ক ১৭ ব্যাচের শিক্ষার্থী আশিকুর রহমান আবির। এছাড়া প্রতিটি হল থেকে ছিলেন যুগ্ম আহবায়ক। এরা হলেন— শেখ রাসেল হল থেকে ফারদিন খান রাফিন ও ওবাইদুল হাসান শুভ, ড. কুদরত এ খুদা হল থেকে আবিদ হোসাইন, শহীদ মোহাম্মদ শাহ হল থেকে নাহিদ ফেরদৌস প্রিয়ম, বঙ্গবন্ধু হল থেকে সাকিফ উদ্দিন খান, শামসুন্নাহার খান হল থেকে মাহরুখা রুবাইয়াত ছিলেন। এছাড়াও ছিল অর্থ, প্রকাশনা, স্পন্সর, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিচালনা, ইভেন্ট পরিচালনা, ফটোগ্রাফি, গ্রাফিকস ইত্যাদি কমিটি। 

উৎসবের আহবায়ক আশিকুর রহমান আবির বলেন, অনেক দিন পর আমরা ’১৭ ব্যাচ ক্যাম্পাসকে পুনরায় প্রাণবন্ত ও উজ্জীবিত করে তোলার জন্য শিক্ষা সমাপনী উৎসব আয়োজন করতে যাচ্ছি। মশাল মিছিলের মাধ্যমে আমরা এটি সূচনা করেছি। মশাল মিছিলসহ ফ্ল্যাশমব, মশাল নিয়ে সমবেত হওয়া, আলোক উৎসব, কনসার্টের আয়োজন করা হয়েছিল। চুয়েট প্রশাসনের আন্তরিক সহযোগিতা ছাড়া মশাল মিছিল আয়োজন করা সম্ভব ছিল না।

পুরো প্রোগ্রামে মিডিয়া পার্টনার হিসেবে ছিল এটিএন বাংলা ও চুয়েটনিউজ২৪.কম, কালার পার্টনার বার্জার পেইন্টস, বেভারেজ পার্টনার অ্যারাবিকা কফি।

Yakub Group

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ksrm