চাঁদাবাজির জেরে এমইএস কলেজে দুই গ্রুপের মারামারি, আহত দুজন

চট্টগ্রামের ওমরগণি এমইএস কলেজে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটেছে। নগরীর জিইসি এলাকার টং দোকান ও ভাসমান দোকান থেকে চাঁদা আদায়কে কেন্দ্র করে মারামারির ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গেছে।

যদিও পুলিশ বলছে, ঘটনা ঘটেছে ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে।

মঙ্গলবার (৩০ আগস্ট) দুপুর ১টার দিকে কলেজ ক্যাম্পাসে মারামারির ঘটনা ঘটে।

ঘটনায় আব্দুল হামিদ রাফি (১৯) নামে এক ছাত্রলীগ কর্মী গুরুতর আহত হন। পরে তাকে চট্টগ্রামে মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

মারামারিতে সালাম নামে আরেক ছাত্রলীগ কর্মীও আহত হন। তার পায়ে ছুরিকাঘাত করা হয়েছে। আহত দুই ছাত্রলীগকর্মী এমইএস কলেজের প্রমি গ্রুপের অনুসারী।

Yakub Group

কলেজ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, প্রমি গ্রুপ ও শাহেদ গ্রুপের মধ্যে চাঁদা আদায় নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। সেই বিরোধের জেরে মারামারির ঘটনা ঘঠেছে। প্রমি ও শাহেদ দুজনই কলেজ ছাত্র সংসদের ভিপি ও সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর ওয়াসিম উদ্দিন চৌধুরীর অনুসারী হিসেবে পরিচিত।

খুলশী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সন্তোষ কুমার চাকমা চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, ‘ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘঠেছে। এ নিয়ে থানায় এখন পর্যন্ত কোন অভিযোগ আসেনি।’

মারামারিতে আহত ছাত্রলীগকর্মীর বিষয়ে জানতে চাইলে পাঁচলাইশ থানার ওসি (তদন্ত) সাদেকুর রহমান বলেন, আহত ছাত্রলীগ কর্মী রাফিকে চমেক হাসপাতাল নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ২৭ নম্বর ওয়ার্ডে পাঠিয়ে দেন। তিনি সাধারণ আহত ও অবস্থা আশঙ্কা মুক্ত হওয়ায় প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ছেড়ে দেওয়া হয়।

আরএম/সিপি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ksrm