চবি দর্শন বিভাগের কৃতি শিক্ষার্থীদের বৃত্তি ও সনদ বিতরণ

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় দর্শন বিভাগের কৃতী শিক্ষার্থীদের বৃত্তি ও সনদ বিতরণ অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেছেন, ‘বৃত্তি শিক্ষার্থীদের মাঝে ইতিবাচক প্রতিযোগিতার প্রণোদনা যোগায়। বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থী একজন মেধাবী ও কৃতী মানুষ হিসেবে সমাজে স্বীকৃত হয়। এই বার্তা তাকে উজ্জীবিত করে এবং কৃতিত্ব প্রবহমান রাখার প্রচেষ্টায় প্রত্যয়ী করে।’

সোমবার (১২ জুন) বেলা ১২টায় দর্শন বিভাগের সভাপতির কক্ষে এ অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়।

অনুষ্ঠানে বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের মধ্যে এম এ পরীক্ষায় প্রথম স্থান অধিকার করে শ্রী চিন্ময় স্মৃতি বৃত্তি লাভ করেন মো. লাওহে মাহফুজ, বি এ অনার্স পরীক্ষায় প্রথম স্থান অধিকার করে প্রফেসর আফসার আলী শিক্ষাবৃত্তি লাভ করেন তাহমিনা আজম এবং বিভাগীয় তৃতীয় বর্ষ, দ্বিতীয় বর্ষ ও প্রথম বর্ষ পরীক্ষায় প্রথম স্থান অধিকার করে বিভাগীয় বৃত্তি অর্জন করেন যথাক্রমে জয় চন্দ্র বৈষ্ণব, মাঈশা জীহান ও সুমিত্রা রায় পুষ্পিতা। বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের সনদ ও নগদ অর্থ প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিভাগের সাবেক সভাপতি প্রফেসর আফসার আলী। উল্লেখ্য, প্রতি বছর স্নাতকে প্রথম স্থান অধিকারীকে প্রদানের জন্য বৃত্তিটির অনুদান তিনিই দিয়েছেন, যা প্রফেসর আফসার আলী শিক্ষাবৃত্তি নামে পরিচিত। চার বছর আগে এ বৃত্তিটি চালু করা হয়।

চবি দর্শন বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড. আব্দুল মান্নানের সভাপতিত্বে ও বৃত্তি প্রদান কমিটির আহবায়ক সহকারী অধ্যাপক আসাদুজ্জামানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে দিকনির্দেশনামূলক বক্তব্য দেন শিক্ষকবৃন্দ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রফেসর ড. নূসরত জাহান কাজল, ড. ইকবাল শাহীন খান, ড. এফএম এনায়েত হোসেন, ড. মো. কোরবান আলী, ড. আকিকুল হক, সহযোগী অধ্যাপক মো. মোজাম্মেল হক, মাছুম আহমেদ, ড. শিরিন আকতার, সহকারী অধ্যাপক মিজানুর রহমান, জওশন আরা জলি, নাসরিন আক্তার, রোমান মিয়া ও শাহ জুলকার নাঈন।

বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের পক্ষে অনুভূতি ব্যক্ত করেন তাহমিনা আজম।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!