চবিতে রাতের আঁধারে বদলে গেল নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি, সরিয়ে নেওয়া হয়েছে ১টি পদ

0

নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের কয়েক ঘণ্টার মধ্যে একটি পদ সরিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) প্রশাসনের বিরুদ্ধে। শুরুতে বিভিন্ন বিভাগের ২৩টি পদে শিক্ষক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছিল চবি প্রশাসন। কিন্তু এর কয়েক ঘণ্টার মধ্যে কোনরূপ সংশোধন বিজ্ঞপ্তি না দিয়ে রাতের আঁধারে একটি পদ সরিয়ে নিয়ে ২২ পদের জন্য নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেন তারা।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, ২৫ নভেম্বর রাতে ১৩ বিভাগের ১৯টি স্থায়ী ও ৩টি অস্থায়ী পদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। এতে ১৬ নম্বরে কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের স্থায়ী একটি প্রভাষক পদের কথা বলা হয়। তবে রাত পোহাতেই দেখা যায় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে এই একটি পদ। এক্ষেত্রে নতুন নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে পূর্বের তারিখ কিংবা অন্যকোনো পদের সংশোধন করা হয়নি।

অনুসন্ধানে জানা যায়, কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের একটি পদে স্থায়ী প্রভাষক নিয়োগের সিদ্ধান্ত ছিলো আগে থেকেই। গত ২৩ অক্টোবর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. শিরীণ আখতার চবির শিক্ষক সেলে এ বিভাগের একটি পদে নিয়োগের সম্মতি দিয়ে স্বাক্ষর করেন। কিন্তু ২৮ অক্টোবর ভর্তি পরীক্ষা চলাকালে বিভাগের পক্ষ থেকে তড়িঘড়ি করে প্ল্যানিং কমিটির বৈঠক ডাকা হয়। এতে আরও দুইজন নতুন শিক্ষক নিয়োগের জন্য মতামত দেন বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক মোহাম্মদ আনোয়ারুল আজিম ও অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ খাইরুল ইসলাম। তবে প্ল্যানিং কমিটিতে উপস্থিত বাকি সাতজন এ বিষয়ে দ্বিমত পোষণ করেন। তবে পূর্বের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী একটি পদে স্থায়ী প্রভাষক নিয়োগের সিদ্ধান্তটি অপরিবর্তিত ছিলো।

এদিকে গত ৩১ অক্টোবর প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতেও দেখা যায় উপাচার্যের সম্মতির বিপরীতে কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের একজন স্থায়ী প্রভাষক নিয়োগের বিষয়টি উল্লেখ করা হয়নি। সর্বশেষ ২৫ নভেম্বর ২৩টি পদে শিক্ষক নিয়োগের বিষয়ে প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের একটি পদে নিয়োগের বিষয়টি উল্লেখ থাকলেও রাতারাতি বিজ্ঞপ্তিটি অজানা কারণে তুলে নিয়ে ২৬ নভেম্বর নতুন নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। যেখানে বাদ দেওয়া হয় কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের একটি পদ।

ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের ডিন ও কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. রাশেদ মোস্তফা চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, ‘ভিসি ম্যাডাম বিভাগে একজন স্থায়ী শিক্ষক নিয়োগের বিষয়ে শিক্ষক সেলে সম্মতি দেন। তা সত্ত্বেও ৩১ অক্টোবর প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি উল্লেখ করা হয়নি। এমনকি গত ২৫ নভেম্বর রাতে প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি ১৬ নম্বরে উল্লেখ থাকলেও রাতেই আবার ১৬ নম্বর পদটি সরিয়ে ফেলা হয়। আর নতুন বিজ্ঞপ্তিতে সংশোধনের বিষয়টিও উল্লেখ করা হয়নি।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক এস এম মনিরুল হাসান বলেন, ‘এটি কোনো সমস্যা না। এ পদের নিয়োগের বিষয়টি পরের বিজ্ঞপ্তিতে যাবে।’

এমআইটি/এমএহক

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm