চন্দনাইশের ভোটে ৪ ইউপিতে আওয়ামী লীগ, তিনটিতে বিদ্রোহীদের সদর্প জয়

4

চট্টগ্রামের চন্দনাইশে সাতটি ইউনিয়নের মধ্যে চারটিতে আওয়ামী লীগ ও বাকি তিনটিতে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থীরা চেয়ারম্যান পদে সরাসরি ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন। জোয়ারা ইউনিয়নে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান হয়েছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী।

বুধবার (৫ জানুয়ারি) সকাল থেকে চন্দনাইশের ৬টি ইউনিয়ন পরিষদে ভোটগ্রহণ করা হয়।

ভোটগ্রহণ শেষে বেসরকারি ফলাফলে দেখা গেছে, ধোপাছড়ি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত মো. আবদুল আলীম (নৌকা) চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি পেয়েছেন ৩ হাজার ১৫৭ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বর্তমান চেয়ারম্যান মো. মোরশেদুল আলম (আনারস) পেয়েছেন ১ হাজার ৭১৫ ভোট।

হাশিমপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত এডভোকেট খোরশেদ বিন ইসহাক (নৌকা) পেয়েছেন ৪ হাজার ৭৪১ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বর্তমান চেয়ারম্যান আলমগীরুল ইসলাম চৌধুরী (চশমা) পেয়েছেন ২ হাজার ৩৭০ ভোট।

বৈলতলী ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত এসএম সায়েম (নৌকা) ৭ হাজার ৮৪৫ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন, নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বর্তমান চেয়ারম্যান আনোয়ারুল মোস্তফা চৌধুরী দুলাল (আনারস) পেয়েছেন ৩ হাজার ৫২৪ ভোট।

কাঞ্চনাবাদ ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী আবদুল শুক্কুর কোম্পানি (আনারস) ৬ হাজার ৬০২ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ মনোনীত এড. আবু ছালেহ (নৌকা) পেয়েছেন ৪ হাজার ৫০২ ভোট।

Yakub Group

বরকল ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী আবদুর রহিম চৌধুরী (আনারস) ৫ হাজার ৪০৪ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ মনোনীত মুক্তিযোদ্ধা ফেরদাউছ ইসলাম খান (নৌকা) পেয়েছেন ১ হাজার ৯৪৩ ভোট।

বরমা ইউনিয়নে মো. খোরশেদ আলম টিটু (ঘোড়া) ৪ হাজার ৪০৪ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ মনোনীত বর্তমান চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম (নৌকা) পেয়েছেন ৪ হাজার ৪৩ ভোট।

এর আগে জোয়ারা ইউনিয়নে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আমিন আহমেদ চৌধুরী রোকন।

অন্যদিকে কাঞ্চনাবাদ ইউনিয়নে সংরক্ষিত ১নং ওয়ার্ডে লাকী আকতার (বই) ২৫২৬, সংরক্ষিত ২নং ওয়ার্ডে সুলতানা পারভীন (মাইক), ১৮১১, সংরক্ষিত ৩নং ওয়ার্ডে খুরশিদা বেগম (বই) ১৫৬৪, জোয়ারা ইউনিয়নে সংরক্ষিত ১নং ওয়ার্ডে ফিরোজা বেগম হেনা (মাইক) ৭৯৬, সংরক্ষিত ২নং ওয়ার্ডে কুলছুমা বেগম (মাইক) ১০৯৯, সংরক্ষিত ৩নং ওয়ার্ডে রহিমা বেগম (কলম) ৭৩১, বরকলে সংরক্ষিত ১নং ওয়ার্ডে সাবিনা ইয়াছমিন (বই) ১৪২৯, সংরক্ষিত ২নং ওয়ার্ডে আয়শা আকতার আজাদী (বই) ১১৭২, সংরক্ষিত ৩নং ওয়ার্ডে ঝর্ণা দাশ (বই) ১৯৭৮ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

ধোপাছড়িতে সংরক্ষিত ১নং ওয়ার্ডে লাকী আকতার চৌধুরী (কলম) ৮৪৯ ভোট, সংরক্ষিত ২নং ওয়ার্ডে জাহানারা বেগম (বই) ৯০২, সংরক্ষিত ৩নং ওয়ার্ডে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় লতিফা আকতার, বৈলতলীতে সংরক্ষিত ১নং ওয়ার্ডে নুরুন নাহার বেগম (বই) ২০৮১, সংরক্ষিত ২নং ওয়ার্ডে জেসমিন আকতার (মাইক) ১৩৭২, সংরক্ষিত ৩নং ওয়ার্ডে ফারহানা জান্নাত দিলু (বই) ২৫৯৩, হাশিমপুর ইউনিয়নে সংরক্ষিত ১নং ওয়ার্ডে মোছা. শাহিদা আকতার (মাইক) ২২১৯, সংরক্ষিত ২নং ওয়ার্ডে ফয়েজুন্নেছা বুলু (বই) ১৩২৮, সংরক্ষিত ৩নং ওয়ার্ডে তাহমিনা সুলতানা (বই) ১৩১৭ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

সাধারণ সদস্য পদে কাঞ্চনাবাদে ১নং ওয়ার্ডে আবদুল হাকিম শামীম (ফুটবল) ৫৭২, ২নং ওয়ার্ডে মো. জাহাঙ্গীর আলম (মোরগ) ৫৭১, ৩নং ওয়ার্ডে মো. শহিদুল ইসলাম (মোরগ) ৩০৭, ৪নং ওয়ার্ডে মো. শাহ আলম (আপেল) ৫৩৪, ৫নং ওয়ার্ডে আবদুল আলীম (মোরগ) ৩৬৩, ৬নং ওয়ার্ডে মো. আনিসুল ইসলাম (তালা) ৭৩৪, ৭নং ওয়ার্ডে মো. তৌহিদ (ক্রিকেট ব্যাট) ৪০৩, ৮নং ওয়ার্ডে মো. জাফর আলম (তালা) ৩১৬, ৯নং ওয়ার্ডে মো. আবুল হোসেন (ফুটবল) ৪৭৯ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

বরকলে ১নং ওয়ার্ডে মো. মহিউদ্দীন খান (টিউবওয়েল) ৪১৩, ২নং ওয়ার্ডে মো. সাইফুদ্দিন (ফুটবল) ৪৯১, ৩নং ওয়ার্ডে মো. ইমরান (তালা) ৩৮৯, ৪নং ওয়ার্ডে আবু জাফর (আপেল) ৪৮৯, ৫নং ওয়ার্ডে মো. সেলিম উদ্দিন (আপেল) ৪৯০, ৬নং ওয়ার্ডে মো. কামাল উদ্দিন (তালা) ৩৬৪, ৭নং ওয়ার্ডে মো. হাবিবুর রহমান (মোরগ) ২৭৪, ৮নং ওয়ার্ডে প্রিয়বত চৌধুরী (তালা) ৪০৮, ৯নং ওয়ার্ডে দিলীপ ভট্টাচার্য্য (টিউবওয়েল) ৬৪৬ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

ধোপাছড়িতে ১নং ওয়ার্ডে মজিবুল হক খোকা (টিউবওয়েল) ৭৪৬, ২নং ওয়ার্ডে টিপু দাশ (মোরগ) ২৬৭, ৩নং ওয়ার্ডে নুরুল কবির (তালা) ৩৫০, ৪নং ওয়ার্ডে মো. জয়নাল আবেদীন (মোরগ) ৩২৬, ৫নং ওয়ার্ডে নাসির উদ্দিন (মোরগ) ২২৭, ৬নং ওয়ার্ডে মোজাম্মেল হক (আপেল) ২৮২, ৭নং ওয়ার্ডে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আশরাফ উদ্দীন ভুইয়া, ৮নং ওয়ার্ডে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আমানত হোসেন, ৯নং ওয়ার্ডে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় করিমুল ইসলাম বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

হাশিমপুরে ১নং ওয়ার্ডে মো. হেলাল উদ্দিন (ফুটবল) ৮৪২, ২নং ওয়ার্ডে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ফজলুল করিম আইয়ুব, ৩নং ওয়ার্ডে মো. গোলাম নবী চৌধুরী (মোরগ) ৬০৭, ৪নং ওয়ার্ডে মো. আবদুল মান্নান (তালা) ৪৩০, ৫নং ওয়ার্ডে মো. রহমত উল্লাহ (ফুটবল) ৪০৬, ৬নং ওয়ার্ডে শফিউল আলম (তালা) ৫৬৩, ৭নং ওয়ার্ডে মো. ইদ্রিস মিয়া (তালা) ৩০৮, ৮নং ওয়ার্ডে মো. শামসুল হক (মোরগ) ৪৫০, ৯নং ওয়ার্ডে মো. আলী (ফুটবল) ৭০০ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

জোয়ারাতে ১নং ওয়ার্ডে আলাউদ্দিন খালেদ (মোরগ) ২৬২, ২নং ওয়ার্ডে রতন কান্তি দে (মোরগ) ২৫২, ৩নং ওয়ার্ডে মো. আবদুল গফফার সুমন (মোরগ) ৪৮৪, ৪নং ওয়ার্ডে মো. আবদুল হাকিম, বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায়, ৫নং ওয়ার্ডে মো. বদিউল আলম, বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায়, ৬নং ওয়ার্ডে হারুনুর রশীদ (তালা) ৪৪০, ৭নং ওয়ার্ডে মো. সেলিম (তালা) ৩৩৩, ৮নং ওয়ার্ডে মো. সরওয়ার উদ্দিন (মোরগ) ৪৯৬, ৯নং ওয়ার্ডে মো. আলমগীর (মোরগ) ৩৭৪ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

বৈলতলীতে ১নং ওয়ার্ডে সায়েদুল ইসলাম চৌধুরী (ফুটবল) ৭৫১, ২নং ওয়ার্ডে এয়ার মোহাম্মদ (টিউবওয়েল) ৪২৩, ৩নং ওয়ার্ডে মুরাদুর রহমান (ফুটবল) ৬৯৫, ৪নং ওয়ার্ডে মো. জসিম উদ্দিন (তালা) ৪৪৭, ৫নং ওয়ার্ডে আবদুল হাই (ফুটবল) ৬৭৬, ৬নং ওয়ার্ডে আবদুর রহিম চৌধুরী (ফুটবল) ৬৪১, ৭নং ওয়ার্ডে মো. আলী (পাকা) ২৯৭, ৮নং ওয়ার্ডে মো. নিমাজ উদ্দিন (ফুটবল) ৮১৭, ৯নং ওয়ার্ডে মো. মঈনুদ্দিন চৌধুরী মানু (ফুটবল) ৬২৯ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

সিপি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ksrm