চট্টগ্রাম রেলে আরএনবির এক হাবিলদারের ১৮ বছর পার, শাস্তি হলেও হয়নি বদলি

রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনীর (আরএনবি) এক হাবিলদার ১৮ বছর ধরেই পড়ে আছেন রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের চট্টগ্রামে। এরমধ্যে অদৃশ্য কারণে তার একবারও বদলির আদেশ হয়নি। চট্টগ্রামে রেলের বিভিন্ন জায়গায় তিনি বিভিন্ন মেয়াদে চাকরি করে যাচ্ছেন। এছাড়া রেলের জায়গা দখল করে দোকান ও ঘর নির্মাণের অভিযোগও রয়েছে তার পরিবারের বিরুদ্ধে।

দু’বছর আগে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ থাকায় এক বছরের জন্য ভাতা বন্ধ করা হলেও বদলি হয়নি। অথচ সরকারি নিয়ম অনুযায়ী, দুই থেকে ৩ তিন বছরের বেশি এক কর্মস্থলে থাকার নিয়ম নেই। টিকিট কালোবাজারি, নিয়োগ বাণিজ্য, ঘুষ লেনদেনসহ নানা অভিযোগে জর্জরিত আরএনবি। এরমধ্যে এত বছর কিভাবে এক জায়গায় চাকরি করে আসছেন, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বাহিনীর লোকজন।

আরএনবির এই হাবিলদারের নাম আবুল হোসেন রকি (৪৫)। তিনি বর্তমানে পাহাড়তলীর নিউস্টোর ডিপোতে কর্মরত আছেন। এর আগে তিনি চট্টগ্রামের পাহাড়তলীর ওয়ার্কশপ, স্টোরসহ বিভিন্ন জায়গায় দায়িত্ব পালন করেন।

জানা গেছে, ২০০৪ সালের অক্টোবরে সৈনিক হয়ে বাহিনীতে যোগ দেন রকি। এরপর হাবিলদার পদে পদোন্নতি পান।

এছাড়া ২০২০ সালে মারধর ও হত্যার হুমকি দেওয়ায় অভিযোগে রকির এক বছরের ভাতা বন্ধের আদেশ দেওয়া হয় বলে জানান অভিযোগকারী সিজিপিওয়াই কর্মরত আরএনবির হাবিলদার জয়নাল আবেদীন।

অভিযোগ রয়েছে, নগরীর আকবরশাহের পাঞ্জাবি লেনে রেলের জায়গা দখল করে দুটি দোকান নির্মাণ করে ভাড়া দিয়েছেন রকির ভাই নাসির।

Yakub Group

পাঞ্জাবি লেনে সরেজমিনে গিয়ে স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেছে। এ সময় নাসির ও লিটন নামের আরেকজন মিলে অবৈধভাবে প্রায় ২০-২৫টি ঘর ভাড়া দিয়েছেন বলে জানান নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় এক ব্যবসায়ী।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে হাবিলদার আবুল হোসেন রকি বলেন, ‘২০০৪ আমি সিপাহী হিসেবে যোগ দিই।’ তবে জায়গা দখল করে তার ভাইয়ের দোকান ভাড়া দেওয়ার কথা তিনি অস্বীকার করেন।

এছাড়া মারধর ও হত্যার হুমকি দেওয়ায় অভিযোগে ভাতা বন্ধের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এক বছর ইনক্রিমেন্ট হেল্ডআপ করেছিল। তবে তা জিডি সংক্রান্ত একটি বিষয়ে।’ তবে আরএনবি সদস্য জয়নাল আবেদীনের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়েছে বলে জানান তিনি।

রেলওয়ে পূর্বাঞ্চল কমান্ড্যান্ট রেজওয়ান উর রহমান বলেন, ‘এভাবে এত বছর এক জায়গায় চাকরির কোনো সুযোগ নেই, এটা অনিয়ম। আমি খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নিচ্ছি।’

ডিজে

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ksrm