s alam cement
আক্রান্ত
৭৫৩৬৩
সুস্থ
৫৩৮৯৮
মৃত্যু
৮৮৫

চট্টগ্রাম দক্ষিণের ৪ উপজেলায় করোনা হঠাৎ বেপরোয়া, কঠিন সময় সামনে

0

চট্টগ্রাম নগরীর বাইরে করোনাভাইরাস সংক্রমণের উর্ধমুখী গ্রাফ নিয়ে এতোদিন চিন্তায় ফেলে দিয়েছিল হাটহাজারী কিংবা সীতাকুণ্ডের মতো চট্টগ্রাম উত্তর জেলার উপজেলাগুলো। দক্ষিণের উপজেলাগুলো এতোদিন অনেকটা থেমে থেমে সংক্রমণ ছড়ালেও হঠাৎ করেই সেখানে বড় একটি বাঁকবদল ঘটেছে। উত্তরকে পেছনে ফেলে দক্ষিণে আচমকা বেপরোয়া রূপ নিয়েছে। বিশেষ করে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার চার উপজেলা করোনা সংক্রমণে নতুন করে দুশ্চিন্তার জন্ম দিয়েছে। এই চার উপজেলা হচ্ছে পটিয়া, বোয়ালখালী, চন্দনাইশ ও আনোয়ারা।

উত্তর জেলার উপজেলাগুলোর সঙ্গে পাল্লা দিয়ে গত কিছুদিন ধরে দক্ষিণের উপজেলাগুলোতেও করোনা সংক্রমণের হার বেশ উর্ধ্বমুখী। সর্বশেষ ২৪ ঘন্টায় করোনা পজিটিভ ৩০৬ জনের মধ্যে ১৪৮ জনই চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার সাত উপজেলার।

চট্টগ্রামের উপজেলা পর্যায়ে সংক্রমণ ছড়ানো নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরেই আলোচনা চলছিল চট্টগ্রামের করোনা চিকিৎসা সংশ্লিষ্টদের মধ্যে। তবে এই আলোচনা বা শংকার পুরোটা জুড়েই ছিল চট্টগ্রাম উত্তর জেলার উপজেলাগুলো। সর্বশেষ করোনা পরিস্থিতি নিয়ে উচ্চপর্যায়ের বৈঠকেও উত্তর জেলার উপজেলাগুলোতে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে বিশেষ আলোচনাও হয়।

এর বিপরীতে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলায় করোনা শনাক্তের সংখ্যা নিয়ে এই সময়টাতে বলতে গেলে নির্ভারই ছিলেন সংশ্লিষ্টরা। তবে হঠাৎ করেই সেখানে বড় একটি বাঁক বদল ঘটেছে। উত্তর জেলার উপজেলাগুলোর সঙ্গে পাল্লা দিয়ে গত কিছুদিন ধরে দক্ষিণের উপজেলাগুলোতেও করোনা সংক্রমণের হার বেশ উর্ধ্বমুখী। সর্বশেষ ২৪ ঘন্টায় করোনা পজিটিভ ৩০৬ জনের মধ্যে ১৪৮ জনই চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার সাত উপজেলার।

এই ২৪ ঘন্টায় উপজেলা পর্যায়ে সবচেয়ে বেশি ৪৫ জন করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে দক্ষিণ জেলার পটিয়া উপজেলায়। এর আগে গত এক মাসে উপজেলা পর্যায়ে সবচেয়ে বেশি শনাক্ত ছিল ঘুরে ফিরে উত্তরের উপজেলাগুলোতেই। অন্যদিকে পটিয়া উপজেলায় গত বেশ কিছুদিন ধরেই করোনার শনাক্তের হার বাড়ছিল। পটিয়া ছাড়াও দক্ষিণের তিন উপজেলায় একই সাথে করোনা পজিটিভ বেড়ে চলেছে নিয়মিতভাবে।

এই তিন উপজেলা হলো বোয়ালখালী, চন্দনাইশ ও আনোয়ারা। সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় আনোয়ারায় শনাক্ত আগের চেয়ে কম হলেও এই চার উপজেলায় গত কিছুদিন ধরে প্রতিদিনই নিয়ম করে বাড়ছে করোনা শনাক্তের সংখ্যা। লক্ষ্যণীয় বিষয় হচ্ছে এই চার উপজেলাই হচ্ছে পাশাপাশি— একটির সঙ্গে আরেকটি যুক্ত।

Din Mohammed Convention Hall

গত কয়েকদিনের করোনা পরীক্ষার তালিকা পর্যালোচনা করে দক্ষিণের উপজেলাগুলোতে করোনার সংক্রমণ ছড়ানোর এমন ইঙ্গিতই মিলছে।

গত শুক্রবার (১৬ জুলাই) পটিয়া, বোয়ালখালী, আনোয়ারা ও চন্দনাইশে যথাক্রমে করোনা পজিটিভ ছিল ২৫, ১৬, ৩ ও ১৫ জন। যা এর আগের দিন বৃহস্পতিবার (১৫ জুলাই) ছিল ৩৬, ১৯, ৭ ও ১২ জন। এর আগের দিন বুধবারও (১৪ জুলাই) এই চার উপজেলায় শনাক্ত ছিল যথাক্রমে ১৭, ৩২,৩৪ ও ১৯ জন।

অথচ মাত্র ১২ দিন আগেও গত ৬ জুলাই এই ৪ উপজেলা মিলিয়ে করোনা পজিটিভ শনাক্তের মোট সংখ্যাই ছিল মাত্র ২৬ জন। এর আগের দিন ৫ জুলাই ৪ উপজেলা মিলিয়ে মোট ২৯ ও পর দিন ৭ জুলাই মোটে ২৫ জন শনাক্ত মিলেছিল।

কিন্তু হঠাৎ করেই গত এক সপ্তাহ ধরে নিয়ম করে বাড়তে থাকে এসব উপজেলার পজিটিভ শনাক্তের সংখ্যা। দক্ষিণের বাকি ৩ উপজেলার মধ্যে সাতকানিয়া, লোহাগাড়া ও বাঁশখালী উপজেলায় এখন পর্যন্ত করোনা শনাক্তের সংখ্যা ওঠানামা করছে।

তবে উত্তরের সাথে পাল্লা দিয়ে গত কয়েকদিন যেভাবে সংক্রমণ ছড়াচ্ছে ও পজিটিভ শনাক্ত বাড়ছে তাতে করে উপজেলা পর্যায়ে আরও কঠিন সময় আসছে এমন ইঙ্গিতই মিলছে।

সিপি

ManaratResponsive

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm