চট্টগ্রাম থেকে কন্টেইনারে লুকিয়ে মালয়েশিয়ায় কিশোর

মালয়েশিয়ার কেলাং সমুদ্রবন্দরে কন্টেইনারের ভেতর থেকে উদ্ধার করা হলো এক ‘বাঙালি’ কিশোরকে। ১৫ বছর বয়সী ওই কিশোর চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে খালি কন্টেইনারের ভেতর লুকিয়ে কেলাং বন্দরে পৌঁছায় ১৬ জানুয়ারি। কন্টেইনারের ভেতর চিৎকার শুনে এগিয়ে গেলে জাহাজের ক্যাপ্টেনের নজরে আসে বিষয়টি।

এরপর ১৭ জানুয়ারি জরুরি ভিত্তিতে জাহাজটি কেলাং বন্দরে ভিড়িয়ে কন্টেইনার থেকে কিশোরকে উদ্ধার করা হয়। তাকে হাসপাতালে পাঠিয়ে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

চট্টগ্রাম বন্দর থেকে ইন্টিগ্ররা জাহাজটি কন্টেইনার ভর্তি করে ১২ জানুয়ারি যাত্রা শুরু করে ১৬ জানুয়ারি মালয়েশিয়ার কেলাং বন্দরের সাগরে পৌঁছে। খালি কন্টেইনারটি সেই জাহাজেই ছিল। আর জাহাজটি চট্টগ্রাম থেকে সরাসরি কেলাং বন্দরেই গেছে। মাঝপথে কোনো যাত্রাবিরতি ছিল না। ফলে চট্টগ্রাম বন্দর দিয়েই ওই কিশোর গেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে কন্টিনেন্টাল ট্রেডার্সের সহকারী ব্যবস্থাপক এসএম ফয়সাল আহমেদ বলেন, ‘চট্টগ্রাম থেকে খালি কন্টেইনারে করেই কিশোরটি কেলাং বন্দরে পৌঁছেছে। কিন্তু সেই খালি কন্টেইনারে ডিপো থেকে উঠল, নাকি বাইরে থেকে এলো; আমরা এখনও জানি না। তবে সে বাংলায় অস্পষ্টভাবে কথা বলছিল।’

তিনি বলেন, ‘জাহাজের ক্যাপ্টেন বিষয়টি অবহিত হওয়ার পরই তাৎক্ষণিকভাবে মালয়েশিয়ার পুলিশকে জানান। এরপর পুলিশ নিশ্চিত হয়েই খালি কন্টেইনারটি শনাক্ত করে। পরে জাহাজ জেটিতে ভিড়িয়ে কন্টেইনার খুলে, কিশোরকে নামিয়ে হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে তার চিকিৎসা চলছে। সে জীবিত আছে এটাই শুকরিয়া।’

এর আগে ২০২২ সালের অক্টোবরে চট্টগ্রাম বন্দর থেকে একইভাবে খালি কন্টেইনারে করে যাওয়া এক যুবকের লাশ পাওয়া গিয়েছিল মালয়েশিয়ার আরেক বন্দর পেনাংয়ে।

Yakub Group

এএস/ডিজে

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ksrm