s alam cement
আক্রান্ত
১০২১৮২
সুস্থ
৮৬৮৫৬
মৃত্যু
১৩২১

চট্টগ্রামে ৭ মহিলার চক্র ভোরে চুরি করে নির্মাণাধীন ভবনে

0

তাদের মুখে থাকে মাস্ক। মাথায় থাকে ওড়না। বেশভূষায় নম্রতার ছাপ থাকলেও পেশা তাদের চুরি। সংখ্যায় তারা সাতজন নারী। মধ্যবয়সী। ভোরে যখন মানুষ যার যার ঘরে ঘুমায়, তখন তারা নামে চুরি করতে। বিশেষ করে নির্মাণাধীন ভবন তাদের টার্গেট।

বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) রাতে চট্টগ্রাম নগরীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের তিন জনকে গ্রেপ্তার করে চট্টগ্রামের বায়েজিদ বোস্তামী থানা পুলিশ।

বায়েজিদের রৌফাবাদ কলোনীর একটি নিমার্ণাধীন ভবনের সামগ্রী চুরির অভিযোগ জমা পড়লে অভিযানে নামে পুলিশ। ওই বিল্ডিংয়ে থাকা সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে এ ঘটনায় জড়িতদের শনাক্ত করা হয়। অভিযান চালিয়ে তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় এই সাত জনের চক্রটির তিন নারী সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এই চুরির ঘটনায় বায়েজিদ বোস্তামী থানার রৌফাবাদ এলাকার আশরাফ আলীর পুত্র মো. রাহাত আলী (২৮) বাদি হয়ে মামলা দায়ের করেন।

গ্রেপ্তার তিনজন হলেন, শামছুনাহার বেগম (৪০), হোসনে আরা বেগম (৩৮) এবং রোকসানা প্রকাশ আফসানা বেগম (৪০)।

তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় ১৮টি সার্কিট ব্রেকার, একটি কয়েল, ১০টি সার্কিট, সাদা কসটেপ ৩০ পিচ, ৯টি প্লাস্টিকের ইউপিভিসি, ১৭টি রেডিওয়াটার ইউপিভিসি, এস নিপলস-পিভিসি ১২টি, এস নিপলস-পিভিসি সাদা-ছোট ২১টি, নীল ছোট ২৩ টি, সার্কিট ইউপিভিসি ২টি এবং বড় এলবো ইউপিভিসি ৬৭টি।

Din Mohammed Convention Hall

পুলিশ জানায়, গত ২১ সেপ্টেম্বর মামলা সময় বাদির বোনের নির্মানাধীন বিল্ডিংয়ের তৃতীয় তলার স্টোর রুমে গিয়ে দেখেন তার ভবনের নির্মাণসামগ্রী নেই। এ বিল্ডিংয়ের তদারকির দায়িত্বে ছিলেন মামলার বাদি মো. রাহাত আলী। পরে সিসিটিভি ক্যামেরা ফুটেজ পর্যালোচনা করে দেখেন ২১ সেপ্টেম্বর সকাল ৭টার দিকে অজ্ঞাতনামা সাতজন মহিলা মুখে ওড়না ও মাস্ক পরে স্টোর রুমে প্রবেশ করে বিল্ডিংয়ের নির্মান সামগ্রী চুরি করে নিয়ে যায়।

বায়েজিদ বোস্তামী থানার ওসি মো. কামরুজ্জামান বলেন, বাদি অভিযোগের প্রক্ষিতে অভিযান পরিচালনা করে তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় চোর চক্রের দলের তিন সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে চোরাই মালামাল উদ্ধার করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে দন্ডবিধি ৪৫৪, ৩৮০ অভিযোগ আনা হয়। গ্রেপ্তার তিন নারীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। তাদেরকে আদালতে প্রেরণের প্রস্তুতি চলছে। বাকি আসামিদের গ্রেপ্তারের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।’

মুআ/এমএফও

ManaratResponsive

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm