চট্টগ্রামে শিশু ধর্ষণ মামলায় যুবকের যাবজ্জীবন

চট্টগ্রামে শিশু ধর্ষণের দায়ে মো. শাহজাহান নামের এক যুবককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে তিন লাখ টাকা অর্থদণ্ড এবং অনাদায়ে আরও তিন বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

এছাড়া ধর্ষণের ঘটনায় জন্ম নেওয়া শিশুর স্বীকৃতি দিয়ে দণ্ডপ্রাপ্ত যুবকের সম্পদ থেকে ব্যয়ভার বহন করতে নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

রোববার (৮ জানুয়ারি) চট্টগ্রাম নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৭ এর বিচারক ফেরদৌস আরা এই রায় দেন।

মো. শাহজাহান চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ের জোরারগঞ্জ থানার ৭ নম্বর কাটাছড়া ইউনিয়নের মৃত শাহ আলমের ছেলে।

সংশ্লিষ্ট আদালত সূত্রে জানা গেছে, ছয় বছর আগে চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ের জোরারগঞ্জ থানা এলাকায় ধর্ষণের শিকার শিশুটি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। ধর্ষণের শিকার শিশুর মা জোরারগঞ্জ থানায় মামলা করতে গেলে, সেখানে মামলা গ্রহণ না করায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে নালিশি মামলা দায়ের করেন।

পরে বিচারক জোরারগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে অনুসন্ধান প্রতিবেদন দাখিলের আদেশ দেন। পুলিশ অনুসন্ধানে ঘটনার প্রাথমিক সত্যতা না পাওয়ায় আদালতে রিপোর্ট জমা দেয়। ওই প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে শিশুটির মা ট্রাইব্যুনালে নারাজি আবেদন করলে আদালত অভিযোগটি আমলে নিয়ে আসামির বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানার আদেশ দেন।

Yakub Group

আসামি ধর্ষণের শিকার নারীর পুত্র সন্তানের পিতৃত্ব অস্বীকার করে। পরে শিশুটির মায়ের বিশেষ আবেদনের প্রেক্ষিতে ডিএনএ পরীক্ষা হয়। ডিএনএ পরীক্ষায় প্রমাণিত হয়, জন্ম নেওয়া শিশুটির পিতা ওই আসামিই।

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৭ এর পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) খন্দকার আরিফুল আলম বলেন, ‘মামলায় বাদিপক্ষের ছয়জন সাক্ষীর সাক্ষ্য শেষে বিচারক আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন। একইসঙ্গে তিন লাখ টাকা অর্থদণ্ড এবং অনাদায়ে আরও তিন বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।’

তিনি আরও বলেন, ‘ধর্ষণের শিকার ভুক্তভোগীর জন্ম নেওয়া সন্তানের ব্যয়ভার রাষ্ট্র বহন করবে বলে আদালত জানান। আসামির সম্পত্তি থেকে ওই ব্যয়ভার বহন করা হবে।’

আইএমই/ডিজে

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ksrm