চট্টগ্রামে মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা শুরু ১ ডিসেম্বর

চট্টগ্রামে মাসব্যাপী মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা শুরু হচ্ছে ১ ডিসেম্বর থেকে। নগরীর এম এ আজিজ স্টেডিয়াম সংলগ্ন আউটার স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে এই মেলা।

বৃহস্পতিবার (১ ডিসেম্বর) বিকেল ৩টায় মেলা উদ্বোধন করবেন বিজয় মেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল।

বুধবার (৩০ নভেম্বর) দুপুরে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা পরিষদের মহাসচিব বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ ইউনুস।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, ৪ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রীর চট্টগ্রাম সফর উপলক্ষে মেলার কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। ১৩ ডিসেম্বর বিকেল ৩টায় এমএ আজিজ স্টেডিয়ামের গোলচত্বরে বিজয় শিখা জ্বালানো হবে।

১৪ ডিসেম্বর শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসের আলোচনা সভা, ১৫ ডিসেম্বর চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি বীর মুক্তিযুদ্ধা এ.বি.এম মহিউদ্দিন চৌধুরীর মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে স্মরণ সভা, ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবসের আলোচনা সভা ও বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা দেওয়া হবে।

তিনি বলেন, ১৯৮৯ সালের পর বিগত ৩৩ বছর বিজয় মেলা হচ্ছে আন্দোলন সংগ্রামের সূতিকাগার চট্টগ্রামে। ‘মুক্তিযুদ্ধের বিজয়, বীর বাঙ্গালীর অহংকার’ স্লোগান নিয়ে এই মেলা দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে।

Yakub Group

দীর্ঘদিনের ধারাবাহিকতা রক্ষা করে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে শাণিত করার লক্ষ্যে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে এবারও বিজয়মেলার আয়োজন করা হচ্ছে।

মুক্তিযুদ্ধকালে ইলেকট্রিক চেয়ারে পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর নির্যাতন ও ১৭ ডিসেম্বর জাতীয় পতাকা উত্তোলনের স্মৃতি বিজড়িত পুরোনো সার্কিট হাউসের ব্যক্তিগত নামের জাদুঘর বাতিল করে মুক্তিযুদ্ধের জাদুঘর প্রতিষ্ঠা এবং বাণিজ্যিক স্থাপনা উচ্ছেদ করে স্মৃতিসৌধ নির্মাণের দাবি জানান মোহাম্মদ ইউনুস।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বিজয় মেলা আয়োজনের জন্য সিজেকেএসকে দশ লাখ টাকা দিতে হয়। এরপরও বিজয় মেলা পরিষদের তহবিলে এখন এক কোটি টাকার এফডিআর রয়েছে। প্রতিবছর হিসাব-নিরীক্ষা করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিজয়মেলা পরিষদের কো চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা বদিউল আলম চৌধুরী, জাহাঙ্গীর আলম, অর্থ সচিব পল্টু লাল সাহা, এসএম মাহবুবুল আলম, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মাহমুদুল হক, নৌ কমান্ডো আবু বকর প্রমুখ।

আরএম/এমএফও

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ksrm