s alam cement
আক্রান্ত
৫৪৮০৭
সুস্থ
৪৬১৯১
মৃত্যু
৬৪২

চট্টগ্রামে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন শুরু, চলবে ১৯ জুন পর্যন্ত

0

সারাদেশের ন্যায় চট্টগ্রামেও স্বাস্থ্যবিধি মেনে অনুষ্ঠিত হয়েছে জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন ২০২১। শনিবার (৫ জুন) নগরীর আন্দরকিল্লাস্থ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে ক্যাম্পেইনের উদ্বোধন করা হয়।

সকালে একটি শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাইয়ে দিয়ে চট্টগ্রাম জেলা পর্যায়ে ক্যাম্পেইনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন ঢাকার মহাখালীস্থ জনস্বাস্থ্য পুষ্টি প্রতিষ্ঠানের পরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসির উদ্দিন মাহমুদ।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য) ডা. হাসান শাহরিয়ার কবীর। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, ১৯৭৪ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এ কর্মসূচির শুভ সূচনা করেন। ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল শিশুর অপুষ্টি, রাতকানা রোগ প্রতিরোধ, দেহের স্বাভাবিক বৃদ্ধি নিশ্চিত, হাম, নিউমোনিয়া ও ডায়রিয়াজনিত মৃত্যুর হার হ্রাসসহ সকল ধরণের মৃত্যুর হার হ্রাস করে।

সরকারের সকল মন্ত্রণালয়ের সমন্বয়ের মাধ্যমে জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা হয়ে থাকে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিচক্ষণতায় করোনাকালীন এই কঠিন সময়ে দুই সপ্তাহব্যাপী ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন বাস্তবায়ন অত্যন্ত প্রশংসনীয়।

বক্তারা আরও বলেন, কোন শিশু যাতে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাসসুল খাওয়া থেকে বাদ না পড়ে সে লক্ষ্যে জেলার প্রত্যেক উপজেলা সদর ও ইউনিয়ন পর্যায়ে জনগণকে জানান দেয়া হয়েছে। পাশাপাশি মসজিদ, হাটবাজার, বাস স্ট্যান্ড, নৌ-ঘাটসহ গুরুত্বপূর্ণস্থানেও ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইনের প্রচার-প্রচারণা চালানো হয়েছে।

চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি বলেন, ৫ জুন থেকে ১৯ জুন পর্যন্ত শুক্রবার ব্যতিত বাকি ছয়দিন এই কার্যক্রম চলবে সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত। এই কার্যক্রমকে সফল করার জন্য উপজেলাগুলোতে জনস্বাস্থ্য পরিদর্শকসহ স্বাস্থ্যসেবায় নিয়োজিত ১১ হাজার ৮৭৭ জন কর্মকর্তা কর্মচারী নিয়োজিত থাকবে।

Din Mohammed Convention Hall

তবে যে সকল স্থায়ী কেন্দ্রগুলোতে ইপিআই কার্যক্রম চলমান রয়েছে সেসকল কেন্দ্রে সপ্তাহে ৬ দিনের পরিবর্তে ৪ দিন ভিটামিন ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে বলে। এবার চট্টগ্রামের ১৫ উপজেলায় ১৫টি স্থায়ী ও ভ্রাম্যমান কেন্দ্র এবং ৪ হাজার ৮শ অস্থায়ী কেন্দ্রে মোট ৭ লাখ ৯০ হাজার ৫০৪ জন শিশুকে ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানোর লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।

৬-১১ মাস বয়সী শিশুদের নীল রঙের ক্যাপসুল ও ১২-৫৯ মাস বয়সী শিশুদের একটি করে লাল ক্যাপসুল খাওয়ানোর নির্দেশনা রয়েছে।

বিএস/কেএস

ManaratResponsive

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm